দৌলতপুর-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দুর্নীতির বেড়াজালে প্রধান শিক্ষক

সারাবাংলা

সাইফুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ থেকে:
মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর উপজেলার দৌলতপুর-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়ম ও সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, গত ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল উপজেলার ৭৮নং দৌলতপুর-২ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন দেলোয়ারা বেগম। এরপর থেকেই তিনি বিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য সরকারি বরাদ্দের অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে। ২০১৯-২০ অর্থ বছরে বিদ্যালয়ের সিøপ কার্যক্রমের জন্য ৭০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দের ৭০ হাজার টাকা থেকে ১৪ হাজার টাকা দিয়ে স্টীলের আলমারি ক্রয় করা হয়েছে। এ ছাড়া ২০১৯-২০ অর্থবছরের ভাউচার এবং ২০২০-২১ অর্থবছরের ভাউচারে বার বার একই মালামাল দেখিয়ে সরকারি বরাদ্দের অর্থ আত্মসাৎ করেছে। বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু কর্ণার, দেয়াল অঙ্কন, সংস্কারের নামে দফায় দফায় হাতিয়ে নিয়েছে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারি অর্থ। বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে চলতি বছরের ১৫ জুন তারিখে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা প্রধান শিক্ষক দেলোয়ারা বেগমকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে দৌলতপুর-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলোয়ারা বেগম বলেন, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বরাদ্দকৃত ৭০ হাজার টাকার থেকে কোনো অনিয়ম হয়নি। আলমারি কেনা যাবে না, সেটা আমার জানা ছিল না। নতুন নতুন প্রধান শিক্ষক হওয়ায় ভুল হয়েছে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু কর্ণার আমি দুইবারই করেছি। আপনি স্ব-শরীরে আমার বিদ্যালয়ে এসে সব ভাউচার দেখতে পারেন। তবে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের পক্ষে সাফাই গেয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মনজুরুল হক বুলবুল বলেন, আমার জানা মতে তিনি কোন অনিয়ম করেননি। সিøপ কার্যক্রমের টাকা দিয়ে আলমারি ক্রয় করা যাবে না, সেটা উনি জানতেন না। ২০১৯-২০ অর্থবছরের বরাদ্দকৃত টাকার ব্যয়ের খাতায় উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা স্বাক্ষর করেছেন। তাহলে প্রধান শিক্ষক অনিয়ম করলো কোথায়? এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ওই বিদ্যালয়ে আমি পরিদর্শন করেছি। বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়েছে। অনিয়মের বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *