দ্বিতীয় দফার তদন্তেও মুশতাকের ‘স্বাভাবিক’ মৃত্যু

আইন আদালত জাতীয়

ডেস্ক রিপোর্ট: গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুতে গঠিত জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদনে মুশতাকের ‘স্বাভাবিক’ মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে।

সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম বলেন, মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর আগে তার চিকিৎসায় অবহেলা ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখতে ২৬ ফেব্রুয়ারি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কমিটি করা হয়। সেই কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ হলো- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের অনুরূপ। অর্থাৎ ‘মুশতাকের মৃত্যু ছিল স্বাভাবিক।’

প্রথম দফায় নির্ধারিত দুই কর্মদিবস শেষে গত সোমবার (১ মার্চ) তদন্ত শেষ না হওয়ায় কমিটিকে আরও পাঁচ কর্মদিবস সময় দেওয়া হয়।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারের জ্যেষ্ঠ সুপার গিয়াস উদ্দিন জানান, ২৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মুশতাক আহমেদ হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে কারা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত ৮টা ২০মিনিটে মুশতাক আহমেদকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটনের রমনা মডেল থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গত বছরের ৬ মে থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং ২৪ অগাস্ট থেকে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ছিলেন লেখক মুশতাক আহমেদ।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *