নড়ে বসছে স্বাস্থ্য অধিদফতর, ৭ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি ও পদায়ন

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকের (ডিজি) ব্যক্তিগত সহকারীসহ (পিএস) অধিদফতরে কর্মরত সাত কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি ও পদায়ন করা হয়েছে।

রোববার (৪ অক্টোবর) পরিচালক (প্রশাসন) ডা. শেখ মোহাম্মদ হাসান ইমাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ বদলি ও পদায়ন করা হয়।

সম্প্রতি ড্রাইভার মালেকের দুনীতিরর ঘটনার পর নড়েচড়ে বসে স্বাস্থ্য অধিদফতরের শীর্ষ কর্মকর্তারা। অধিদফতরের বিভিন্ন বিভাগের মূলপদের বিপরীতে কতজন কর্মকর্তা-কর্মচারী কর্মরত রয়েছেন, তার তালিকা তৈরির কাজে হাত দেন তারা।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতরে সংস্কার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অধিদফতরে দীর্ঘদিন ধরে বেশ কিছুসংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন যারা দীর্ঘদিন ধরে মূল পদের বিপরীতে অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে অধিদফতরের বিভিন্ন বিভাগে দায়িত্ব পালন করছেন। দীর্ঘদিন একই পদে চাকরি করার কারণে তাদের অনেকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

প্রাথমিকভাবে সাত কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি ও পদায়ন করা হলেও পর্যায়ক্রমে আরও অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অভ্যন্তরীণ কিংবা অন্যত্র বদলির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

বদলি ও পদায়ন করা হলো যাদের

স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের (ডিজি) ব্যক্তিগত সহকারী (মূলপদ প্রশাসনিক কর্মকর্তা) মো. শাহজাহান ফকির। তাকে জাতীয় নাক কান ও গলা ইনস্টিটিউটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শূন্যপদে বদলি ও পদায়ন করা হয়।
অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালকের (প্রশাসন) ব্যক্তিগত সহকারী মো. আজিজুল হক (মূলপদ প্রশাসনিক কর্মকর্তা)। তাকে তার অতিরিক্ত দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়। তিনি মূল পদে কাজ করবেন বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ। তাকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা পদে বদলি ও পদায়ন করা হয়েছে।

অধিদফতরের পরিচালক অর্থের ব্যক্তিগত সহকারী মোহাম্মদ আব্দুল মান্নানকে স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে পদায়ন করা হয়।

অধিদফতরের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর কৃষ্ণ কুন্ডুকে অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রশাসনের ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে পদায়ন করা হয়।

পরিচালক প্রশাসনের ব্যক্তিগত সহকারী (মূল পদ স্টেনোটাইপিস্ট) মো. আব্দুল মজিদ চৌধুরীকে পদায়ন করা হয়েছে পরিচালক পরিকল্পনা ও গবেষণার ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে।

এছাড়া পরিচালক হাসপাতাল ও ক্লিনিকের ব্যক্তিগত সহকারী মো. কামরুল হাসানকে তার সংযুক্তির আদেশ বাতিল করে তাকে মূলপদের কর্মস্থলে বহাল করা হয়।

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *