নবাবগঞ্জে গণপিটুনিতে নারী নিহতের ঘটনায় মামলা

Uncategorized

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি
ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে রুনা (২৫) নামে এক নারীর মৃত্যুর ঘটনায় নবাবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মৃত্যুঞ্জয় কির্তনীয়া জানান,  সোমবার সকালে নিহত রুনার ভাই জহর আলী বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। এতে বলমন্তচর গ্রামের হযরত আলী ও তার স্ত্রী জহুরা বেগমসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক জহুরা বেগমকে গ্রেফতার দেখিয়ে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আজ (সোমবার) আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলার আরেক আসামি হযরত আলী পলাতক রয়েছে। জানা যায়, হযরত আলীর স্ত্রী জহুরা বেগম গত রোববার সকালে করোনার টিকা দিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন। এসময় জহুরা বেগম গলার স্বর্ণের চেন দেখতে না পেয়ে রুনা ও পপি নামে দুই নারীকে আটক করে তাদের বাড়িতে নিয়ে মারধর করেন। এঘটনায় বাড়িতে আরও লোকজন জড়ো হয়ে গণপিটুনির এক পর্যায়ে রুনা নামে এক নারী ঘটনাস্থলে মারা যায়। অন্যজনের অবস্থা খারাপ হলে তাকে দ্রুত নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে ভর্তি করেন। পরে পুলিশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। নিহত রুনা ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ডহর মন্ডল গ্রামের মৃত সুরুজ আলীর মেয়ে। আহত পপি একই উপজেলার মহরম আলীর মেয়ে ও নিজামুদ্দিনের স্ত্রী।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *