নরসিংদী পৌরসভা নির্বাচন

সারাবাংলা

বশির আহম্মেদ মোল্লা, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি : আসন্ন নরসিংদী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন নরসিংদী পৌরসভা মানবিক মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি করোনাযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. কামরুজ্জামান কামরুল। কয়েক শতাধিক দলীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা বিজয় নিশ্চিত করতে নরসিংদীর কৃতি সন্তান শিল্পমন্ত্রী অ্যাড. নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের আর্শিবাদ নিয়ে বুধবার সকালে ঢাকা ধানমন্ডি ৩/এ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয় থেকে নরসিংদী পৌরসভা মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহকালে উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল মতিন ভূঞা, কেন্দ্রীয় তাঁতীলীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকত আলী, নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) আলহাজ্ব জিএম তালেব হোসেন, নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগ (ভারপ্রাপ্ত) সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব পীরজাদা কাজী মোহাম্মদ আলী, নরসিংদী শহর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আমজাদ হোসেন বাচ্চু। এসময় উপস্থিত ছিলেন- নরসিংদী শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শ্যামল সাহা, জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আকরামুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি দীন মোহাম্মদ ও সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন সাহা, নরসিংদী জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান শামীম নেওয়াজ, জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি আসাদ ভূঁইয়া, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুমি সরকার ফাতেমা, সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর ইয়াসমিন সুলতানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিলকিস বেগম, শহর শ্রমিক লীগের সভাপতি খন্দকার পারভেজ ও সেক্রেটারী তারিকুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাসিবুল হাসান মিন্টু, নরসিংদীর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইসাক খলিল বাবু, শহর ছাত্রলীগ সভাপতি রাজীব সরকার, কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শিবলী আহমদ, জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি খন্দকার লিটন।

জানা যায়, বৈশিক মহামারী করোনা সংকট মোকাবেলায় গত ২০২০ইং সনের ১৭ মার্চ থেকে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে নরসিংদী পৌরসভার মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান কামরুল। মেয়র হিসেবে শুধু নিজের পৌর এলাকা নয়, করোনা মহামারিতে মানবিকতার দৃষ্টান্ত ছড়িয়েছেন জেলাব্যাপী। তাঁর ব্যক্তিগত উদ্যোগে গৃহীত নানামুখী কর্মকান্ডের স্বীকৃতিস্বরূপ মিলেছে জেলাবাসীর দেওয়া মানবিক মেয়রের খেতাব। করোনা মহামারির শুরু থেকেই ব্যক্তিগতভাবে বিতরণ করেছেন ৩০ হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী, ৫০ হাজার মাস্ক, ২০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ডওয়াশ ও সাবান। জেলার চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সুরক্ষা ও নিরাপত্তার জন্য দিয়েছেন দুই হাজার পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই)। করোনার ভয়াবহতা সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করেছেন। রাস্তাঘাট, পৌর এলাকার আনাচকানাচে জীবাণুনাশক স্প্রে করাসহ ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থান, অফিস, আদালত ও হাট-বাজারে বসিয়েছেন অর্ধশতাধিক জীবাণুনাশক টানেল। রমজান মাসে প্রতিদিন পাঁচ হাজার মানুষের হাতে তুলে দিয়েছেন রান্না করা খাবারের প্যাকেট। ঈদের দিন একসঙ্গে খাইয়েছেন ২৫ হাজার অসহায় মানুষকে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে আরো পাঁচ হাজার পরিবারে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে দুস্থ, স্বামী পরিত্যক্তা ও বিধবা শতাধিক নারীকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে দিয়েছেন সেলাই মেশিন এবং ১০ জন প্রতিবন্ধীকে দিয়েছেন হুইলচেয়ার। মানবসেবামূলক কাজ করে ভালবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *