নলডাঙ্গায় মুঠোফোন না পেয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

সারাবাংলা

নলডাঙ্গা (নাটোর) প্রতিনিধি
মোবাইল ফোন কেনার জন্য মায়ের কাছে বায়না ধরেছিল আসিফ শেখ (১৫) নামের এক কিশোর। এতে রাজি না হওয়ায় অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিল সে। নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে রঁশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে কিশোর আসিফ। গত বুধবার রাতে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বিপ্রবেলঘড়িয়া ইউনিয়নের কাজিপুরদিয়ার গ্রামের দক্ষিণপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। আসিফ শেখ একই এলাকার প্রবাসী এমদাদুল শেখের ছেলে। সে বাসুদেবপুর শ্রীশচন্দ্র বিদ্যানিকেতনের নবম শ্রেণীর ছাত্র। নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসিফের বাবা দেশের বাহিরে থাকেন। সম্প্রতি তার স্মার্টফোনটি হারিয়ে যায়। পরে মায়ের কাছে ফোন কেনার জন্য বায়না ধরে সে। কিন্তু তার মা রাজি না হয়ে বাবার মতামতের অপেক্ষায় থাকে। বুধবার দিনগত রাতে পড়াশোনা ও মোবাইল প্রসঙ্গ নিয়ে মা এবং ছেলের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে রাত দেড়টার সময় মায়ের ওপর অভিমান করে নিজ ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে রঁশি লাগিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। সকালে দরজার ফাক দিয়ে তার মৃতদেহ ঝুলতে দেখে স্বজনরা। পরে পুলিশে খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে মৃহদেহটি উদ্ধার করা হয়। তবে এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ না থাকায় মৃতদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে থানায় ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *