নিজ হাতে ২ মেয়েকে ডুবিয়ে মারলো মা

নিজ হাতে ২ মেয়েকে ডুবিয়ে মারলো মা

আন্তর্জাতিক

আন্দর্জাতিক ডেস্ক : রাতের বেলায় খাবার নিয়ে অশান্তি তৈরি হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে ২ সন্তানকে পুকুরে ডুবিয়ে হত্যা করে মা। রোববার (১০ জানুয়ারি) মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহের চাঁচোল ২নং ব্লকের অনুপ নগর এলাকায়। ইতিমধ্যেই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অভিযুক্ত কন্যা সন্তানের মা এবং ঠাকুরমাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, শুধু রাতে খাবার নিয়ে অশান্তি নয়, পর পর দুই কন্যা সন্তান জন্মানোর জন্য মাঝে মধ্যেই স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া হতো।

মৃত দুই মেয়ের বাবা চঞ্চল মণ্ডল বলেন, সন্ধ্যায় যখন বাড়ি ফিরি, তখন স্ত্রীয়ের সঙ্গে আমার রাতের খাবার নিয়ে তুমুল ঝগড়া হয়। পরে যে যার মতো রাতে ঘুমিয়ে পড়ি। বড় মেয়ে আমার পাশেই ঘুমিয়েছিলো।

তিনি বলেন, সকালে উঠে জানতে পারি, মেয়ে পুকুরের জলে ডুবে গিয়েছে। তড়িঘড়ি বাড়ি থেকে ছুটে গিয়ে দেখি গ্রাম থেকে দূরে, মাঠের পাড়ে একটি পুকুরে আমার ২ মেয়ের মরদেহ ভাসছে।

চঞ্চলের মৃত দুই মেয়ের নাম মাধুরী মণ্ডল (১০) ও জয়শ্রী মণ্ডল (৮)। অভিযুক্ত মায়ের নাম মাম্পি মণ্ডল।

সকালে ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ। এর মধ্যে মেয়েদের মরদেহ জলে ভাসতে দেখে মাকে আটকে রাখেন গ্রামবাসীরা। অভিযুক্ত মাম্পিকে গ্রামবাসীদের থেকে ছাড়িয়ে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

উদ্ধার করা হয় দুই মেয়ের মরদেহ। চঞ্চল জানান, তার স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগে ভুগছে। সেই কারণেই হয়তো সে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। যদিও এলাকার মানুষ সেই কথা মানতে চাননি। তাদের দাবি, বিয়ের পর থেকে এই দম্পতির মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকতো। পরপর ২ কন্যা সন্তান জন্মানোর পর সেই অশান্তি আরো বাড়ে। সেই কারণেই ২ সন্তানকে প্রাণ দিতে হলো বলে মনে করছেন তারা।

কোনো কারণে পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণের বাইরে না যায়, সে জন্য এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ বাহিনী। মরদেহ দু’টি মালদহ মেডিকেল কলেজে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *