নিবন্ধন না থাকলেও কেন্দ্রে গেলে মিলবে টিকা

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশজুড়ে আগামীকাল রবিবার সকাল থেকে শুরু হচ্ছে করোনাভাইরাসের টিকা দান কর্মসূচি। এই কাজ ঘিরে জেলা-উপজেলায় প্রস্তুতি প্রায় শেষ করে আনা হয়েছে। কাল যাঁরা টিকা পাবেন তাঁদের মোবাইল ফোনে নোটিশ যাবে আজ। এরই মধ্যে তিন লাখ ছাড়িয়েছে নিবন্ধনকারী। প্রথম দিন ১ হাজার ১৫টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। টিকাদানে নিয়োজিত থাকবে স্বাস্থ্যকর্মীদের ২ হাজার ৪০২টি দল।

টিকার জন্য নিবন্ধন না করলেও কেন্দ্রে আসলে টিকা নেওয়া যাবে জানিয়ে  স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘নিবন্ধন না করলেও কেন্দ্রে এসে টিকা নিতে পারেন এমন ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। এক্ষেত্রে টিকা নিতে ইচ্ছুক ব্যক্তিকে জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে আনতে হবে। আগে নিবন্ধন না করা টিকাগ্রহীতার সব তথ্য রেখে দেওয়া হবে, স্বাস্থ্যকর্মীরা পরে তা ডেটাবেইজে তুলে দেবেন।’

কয়েকশ’ জনকে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ১০ দিন পর রবিবার সকাল ৯টা থেকে সারাদেশে একযোগে এই টিকা দেওয়া শুরু হবে। এরই মধ্য দেশের ৬৪ জেলায় পৌঁছে গেছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে আনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাসের টিকা।

এদিকে এরই মধ্যে যাঁরা নিবন্ধন করেছেন তাঁদের মধ্য থেকে আগামীকাল প্রথম দিনে যাঁরা টিকা প্রাপ্য, তাঁদের মোবাইল ফোনে আজ শনিবার খুদে বার্তার মাধ্যমে সেটি জানিয়ে দেওয়া হবে অধিদপ্তর থেকে। গতকাল শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত নিবন্ধন তিন লাখ ছাড়িয়েছে বলে জানা গেছে তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় থেকে।

তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, ‘এখন যেকোনো ডিভাইস থেকে আমাদের সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে গেলেই যে কেউ তাঁর ন্যাশনাল আইডি কার্ড নম্বর ব্যবহার করে এবং অগ্রাধিকারভিত্তিক তথ্য ঠিক থাকলে নিবন্ধন করতে পারছেন।

শুক্রবার জুমার নামাজের সময়টুকু বাদ দিয়ে প্রতি আধাঘণ্টায় প্রায় ১০ হাজারজন নিবন্ধন করেছেন। সারা দেশে নিবন্ধনকারীর সংখ্যা তিন লাখ ছাড়িয়েছে। কোনো জেলা বা উপজেলা নিবন্ধনশূন্য থাকবে বলে মনে হয় না। এ ক্ষেত্রে যাঁরা কারিগরি দিকটি বিশ্লেষণ করছেন, তাঁরা ঠিক করে দেবেন প্রথম দিন কোন জেলায় কোন সেন্টারে কতজন টিকা দিতে যাবেন। এর ফলে নিবন্ধন নিয়ে আর কোনো জটিলতা হওয়ার কথা নয়।’

এদিকে স্থানীয় মানুষের মধ্যে টিকাদানের উৎসাহ বাড়াতে জনপ্রতিনিধি, বিশেষ করে সংসদ সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন নিজ নিজ এলাকায়। সংসদ সদস্যদের বেশির ভাগই যাঁর যাঁর নির্বাচনী এলাকায় আগামীকাল টিকা নেবেন বলেও প্রস্তুতি রয়েছে। অনেক এলাকায় মন্ত্রীরাও থাকবেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *