নিরাপত্তার চাদরে পাইকগাছা শক্ত অবস্থানে প্রশাসন ॥ ভোটের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন

সারাবাংলা

শেখ সেকেন্দার আলী, পাইকগাছা থেকে
খুলনার পাইকগাছা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে আজ নির্বাচন। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ছয় ম্যাজিস্ট্রেটসহ ২ হাজার ২৫৩ আইন প্রয়োগকারী সংস্থা মোতায়ন করা হয়েছে। সব ইউনিয়নের জন্য র‌্যাবের তিনটি পেট্রোল দল, তিন প্লাটুন বিজিবি, তিন প্লাটুন কোস্টগার্ড, ১ হাজার ৫৬৫ জন আনসার ও ৫৫০ জন পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নির্বাচনীয় কাজের জন্য সব উপকরণ প্রিজাইটিং ও সহকারী প্রিজাইটিংদের মাধ্যমে স্ব স্ব কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। ওসি এজাজ শফী জানান, সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ কেউ বিনষ্ট করার চেষ্টা করলে তা কঠোর হস্তে দমন করা হবে। পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। নির্বাচনী সুষ্ঠু পরিবেশ কেউ ঘোলাটে করার অপচেষ্টা চালালে তা বরদাস্ত করা হবে না। এজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।
এদিকে পাইকগাছায় নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করা কালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সচিবসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়। খুলনার পাইকগাছায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনীয় দুই পক্ষের মিছিল শেষে দ্বিতীয়বার মারমুখী অবস্থানে থাকা কালে চাঁদখালী ইউনিয়ন থেকে পুলিশ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেÑ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব ধামরাইল গ্রামের আজিজুল সরদার, একই এলাকার আসাদুল সরদার, নজরুল সরদার, শাহীনুর গাজী, মুকুল মোড়ল ও সাব্বির হোসেন মোড়ল। গত শনিবার রাত ১১টায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক ও স্বতন্ত্র আনারস প্রতীকের মিছিল শেষে তার একে অপরে সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর দ্বিতীয়বার সংঘর্ষে জরিয়ে পড়ার উপক্রম হলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ওসি এজাজ শফীর নেতৃত্বে ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গতকাল রোববার তাদের আইনে প্রক্রিয়ায় আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ওসি এজাজ শফী জানান, নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার পাঁয়তারা করা হলে তা কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *