নিরাপদ সড়ক দিবসের আলোচনায় কক্সবাজারে ট্রাফিকের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ

সারাবাংলা

আনোয়ার হাসান চৌধুরী, কক্সবাজার থেকে : পর্যটন শহর কক্সবাজারে ট্রাফিকের নামে চাঁদাবাজি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসের আলোচনায় এসব অভিযোগ তুলে ধরা হয়।
সভায় বক্তারা বলেছেন, সড়ককে নিরাপদ করতে সবাইকে সচেতন হতে হবে এবং দায়িত্ব পালন করতে হবে। সকালে কক্সবাজারে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা একথা বলেন। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের শহীদ এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।
জেলা প্রশাসন ও নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা, বিআরটিএ কক্সবাজার সার্কেলের সহকারি পরিচালক উথোয়াইনু চৌধুরী, ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর (টিআই) আমজাদ হোসেন, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদি, জেলা জাসদ সভাপতি নইমুল হক চৌধুরী টুটুল, বাস মালিক সমিতির নেতা আলহাজ্ব রফিকুল হুদা চৌধুরী, আবুল কালাম আবু, নিসচা জেলা শাখার সভাপতি মো: জসিম উদ্দিন কিশোর, সহ সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসাইন সাকিল এবং গাড়ি চালকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আকতার কামাল ড্রাইভার।
এর আগে ডিসি অফিস চত্বরে বেলুন উড়িয়ে দিবসটির কার্যক্রম শুরু করা হয়। এরপর মুজিব বর্ষের শপথ, সড়ক করবো নিরাপদ প্রতিপাদ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের শহীদ এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানে নইমুল হক চৌধুরী টুটুল বলেন, ট্রাফিক পুলিশের নামে বিভিন্ন যানবাহন থেকে মাসিক হারে চাঁদা তোলা হচ্ছে। অনুমোদনহীন গাড়ির কারণে সড়কে দুর্ঘটনা ঘটছে। বাড়ছে যানজট ও যাত্রী হয়রানি। এসব অনিয়ম বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার আহবান জানান তিনি। গাড়ি চালকদের কার্যকর প্রশিক্ষণ ও গাড়ি চালানোর পূর্বে গ্যাস সিলিন্ডারসমূহ মাঝেমধ্যে চেক করার আহবান জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা। করোনার দ্বিতীয় রাউন্ডের আগে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১ লাখ মাস্ক বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *