নিসবেতগঞ্জ রক্ত গৌরব স্মৃতিসৌধে মানববন্ধন

সারাবাংলা

রংপুর ব্যুরো:
১৯৭১ সালের ২৮ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে রংপুরের মুক্তিকামী বীর জনতা কর্তৃক রংপুর ক্যান্টনমেন্ট ঘেরাও অভিযানে শাহাদৎ বরণকারী সব শহীদের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তালিকাভুক্ত করে সম্মানিত করার দাবি জানিয়েছেন ক্যান্টনমেন্ট ঘেরাও অভিযানে শাহাদৎ বরণকারীদের পরিবারের সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধারা। রোববার ২৮শে মার্চ রংপুর ক্যান্টনমেন্ট ঘেরাও দিবস উপলক্ষ্যে মহানগরীর নিসবেতগঞ্জ রক্ত গৌরব স্মৃতিসৌধে মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানান তারা।
এদিকে দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০টায় নিসবেতগঞ্জ রক্ত গৌরব স্মৃতিসৌধে রংপুর ক্যান্টনমেন্ট ঘেরাও অভিযানে শাহাদৎ বরণকারী সকল শহীদের প্রতি পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রংপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ আসিব আহসান, রংপুর সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান সুমি, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রংপুর ইউনিট কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার গোলাম মোস্তফা, সাবেক সদর উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার বাবু বলরাম মহন্ত, মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুবর রহমান, মোঃ ইয়াসিন, শামিম তালুকদার,রংপুর মহানগর আওয়ামীলীগ সদস্য রফিকুল ইসলাম দুলাল, নজমুল ইসলাম ডালিম, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান শেখ খায়রুল আলম দুঃখু, আখতারুজ্জামান স্যান্ডো, জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি মেহেদি হাসান সিদ্দিকী রনি ও রংপুর মহানগরীর ১৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বেলালসহ নিসবেতগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রাধাকৃষ্ণপুর ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এদিকে দিবসটি উপলক্ষে ক্যান্টনমেন্ট ঘেরাও (দখল মুক্ত) এর নেতৃত্বদানকারী নেতা মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈয়বুর রহমানের সন্তান ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল ইসলামের নেতৃতে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যালে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। এরপর ২০ নং ওয়ার্ড উদযাপন কমিটির উদ্যোগে নগরীতে তীর-ধনুক নিয়ে একটি বণার্ঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীতে অংশ গ্রহন করেন রংপুরের সমাজ সেবক হাসান আলী, এ্যাড সাজেদ হোসেন তাতা, সমাজ সেবক মোজাম্মেল হক চৌধুরী, মুলাটোল সমাজ উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি এ্যাড. মাসুম হাসান, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাজু, সমাজ সেবক এনামুল হক রাজু, মোস্তাক আহমেদ, বাপ্পী, মহনগর সেচ্ছা সেবকলীগের সাধালর নসআপাদক রমজান আলী তুহিন, মারফুল ইসলাম রাজিব, মুলাটোল দোকান মালিক সমিতির সভাপতি দেওয়ান বকুল, সিনিয়র সভাপতি আব্দুল্লাহ সরকার, হাজী নুরুল ইসলাম, জাসদ ছাত্রনেতা এ্যাড. ওসমান গনি, সমাজ সেবক আমজাদ হোসেন সরকার, প্রফেসর আব্দুল হান্নান, ডাঃ নিখিল চন্দ্র গুহ, সাবেক ছাত্র নেতা সোহেল রানা, এ্যাড. আখতারুজ্জামান লিটু, ২০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রায়হান, সহ-সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিংকু, সমাজ সেবক এরশাদুল হক খন্দকার লিটন, হানিফ দেওয়ান, হযরত আলীসহ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড রংপুর জেলা ও মহানগর কমিটির সদস্য এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈয়বুর রহমান উচ্চ বিদ্যলয়ের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *