নোয়াখালীতে তরুণীকে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ

জাতীয়

অনলাইন ডেস্ক : নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার হরণী ইউনিয়নে এক তরুণীকে (১৯) রাতের আঁধারে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে নদীর পাড়ে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে রোববার রাতে স্থানীয় হেলাল উদ্দিন (৪০) ও তার সহযোগী জামসেদকে আসামি করে হাতিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে হেলাল উদ্দিনকে সোমবার ভোরে উপজেলার কাজিরটেক এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে। তিনি ওই গ্রামের মাহফুজুর রহমানের ছেলে। মেয়েটিকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য সোমবার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হাতিয়া থানায় দায়ের করা নির্যাতিত মেয়েটির অভিযোগের বরাত দিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মোরশেদ বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক আব্দুল হালিম জানান, ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণী পাশের জেলা লক্ষ্মীপুরে একটি বাসায় থাকতেন। গত ৪-৫দিন আগে তিনি তার বাবার বাড়ি হাতিয়া উপজেলার হরণী ইউনিয়নের আসেন।

গত শনিবার রাত ১টার দিকে ওই তরুণী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে আগ থেকে ওত পেতে থাকা হেলাল ও রহমতপুর গ্রামের বেল্লাল মাঝির ছেলে জামসেদ (৩২) তাকে পেছন থেকে মুখ-হাত চেপে ধরে বাড়ির পাশের রাস্তায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে মোটরসাইকেলযোগে চাম্মার ঘাট মেঘনা নদীর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে জামসেদের সহযোগিতায় হেলাল উদ্দিন মেয়েটিকে রাতভর ধর্ষণ করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *