নোয়াখালীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা : ফুফার বিরুদ্ধে মামলা

সারাবাংলা

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১২) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে অভিযুক্ত ফুফার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী ছাত্রীর পিতা। অভিযুক্ত আসামি অজি উল্যাহ (৪৫) উপজেলার চরকিং ওইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের গামছাখালী গ্রামের নজির উল্যার ছেলে। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে।  শনিবার দুপুর ২টায় হাতিয়া থানার পরিদর্শক কাঞ্চন কান্তি দাস এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, গত শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা চরকিং ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের গামছাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে অভিযুক্ত আসামির বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, ভিকটিম খাসের হাট মাজেদিয়া মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। তার বাবা স্থানীয় সাব বাজারের একজন ব্যবসায়ী। শুক্রবার সকালে তার বাবা ব্যবসার কাজে বাজারে ছিল এবং মা জরুরী কাজে পার্শ্ববর্তী এক প্রতিবেশীর বাড়িতে যায়। এ সুযোগে বসতঘরে ঢুকে দূর সম্পর্কের ফুফা তাকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ওই ছাত্রী শৌর চিৎকার করিলে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে কৌশলে অভিযুক্ত আসামি পালিয়ে যায়। তদন্ত কাঞ্চন কান্তি দাস জানান, এ ঘটনায় নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে। মামলার আলোকে পুলিশ আসামিকে গ্রেফতারে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। সে বর্তমানে পলাতক রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *