পরিবারের কাছে ফিরছেন সাকিব

খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক: দ্বীপরাষ্ট্রে সফর হলে ২৯ অক্টোবরের পরই জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যেত সাকিবকে। আপাতত সেই সুযোগটি নেই। শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হওয়ায় নিষেধাজ্ঞায় থাকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অপেক্ষা আরও বাড়লো।

এজন্য যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে বৃহস্পতিবারই রওনা হচ্ছেন সাকিব। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পর ঘরোয়া ক্রিকেট ও জাতীয় দলের ট্রেনিংয়ে যোগ দেবেন এ স্পিন অলরাউন্ডার।

করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার আগে যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দেন সাকিব। সেখানে আগে থেকেই ছিল তার পরিবার। যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনের একটি হোটেলে ১৪ দিনের আইসোলেশন শেষে সাকিব পরিবারের কাছে যান। সাকিব ও উম্মে আহমেদ শিশির আহমেদের ঘর আলো করে গত ২৪ এপ্রিল এসেছে দ্বিতীয় কন্যা সন্তান। এর আগে তারকা দম্পতির কোলজুড়ে ২০১৫ সালের ৯ নভেম্বর আসে অব্রি।

প্রায় সাত মাস সেখানে থাকার পর গত ২ সেপ্টেম্বর দেশে আসেন সাকিব। উদ্দেশ্য নিষেধাজ্ঞা শেষ হবার পরপরই জাতীয় দলে ঢোকা। এজন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে ট্রেনিং শুরু করেন। বেছে নেন নিজের বিদ্যাপীঠ বিকেএসপিকে। সেখানে কোয়ারেন্টাইনের পাশাপাশি চলে সাকিবের ফিটনেস এবং স্কিল ট্রেনিং। বিকেএসপিতে সাকিব পাশে পান শৈশবের দুই কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিম ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তাদের অধীনে প্রায় এক মাস ট্রেনিংয়ের পর বিরতি দিলেন সাকিব। শ্রীলঙ্কা সফর পিছিয়ে না গেলে এ ট্রেনিং আরো লম্বা হতো।

অনুশীলনের পাশাপাশি দেশে ব্যক্তিগত কাজও করেছেন সাকিব। জানা গেছে দুই তিনটি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয় করেছেন এ পোস্টার বয়।

গত অক্টোবরে জুয়াড়ির কাছ থেকে পাওয়া তথ্য গোপন করায় এক বছরের জন্য সকল ধরণের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হন সাকিব। নিষেধাজ্ঞায় এ থাকা ক্রিকেটার মাঠে ফিরতে পারবেন আগামী ২৯ অক্টোবর।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *