পলাশে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ : থানায় মামলা

সারাবাংলা

নরসিংদী প্রতিনিধি :
নরসিংদীর পলাশে স্থানীয় এক কাউন্সিলরের ভাইয়ের বিরুদ্ধে স্বামীকে আটকে রেখে এক গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গত শনিবার রাতে অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকারের বিরুদ্ধে পলাশ থানায় মামলা করেছেন নির্যাতিতা ওই গৃহবধূ। এর আগে ২৬ অক্টোবর এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকার ঘোড়াশাল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলম খন্দকারের ভাই।
পুলিশ ও নির্যাতিতা গৃহবধূর পরিবার জানায়, পাপ্পু খন্দকার গত ২৬ অক্টোবর তার গাড়ি চালকের মাসিক বেতন দেয়ার কথা ছিল। বেতনের টাকা চালক নষ্ট করে ফেলবে এই অজুহাত দেখিয়ে চালকের স্ত্রীকে নিয়ে আসতে বলেন গাড়ির মালিক পাপ্পু খন্দকার। পরে মালিকের কথা অনুযায়ী চালক তার স্ত্রীকে গাড়ীতে করে নিয়ে আসেন। ওই সময় পাপ্পু খন্দকার তার দোকোনে গাড়ী চালককে আটকে রেখে গাড়ীতে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন। আবারও গত শুক্রবার গাড়ির মালিক পাপ্পু খন্দকার চালকের স্ত্রীকে নিয়ে আসতে বলেন। চালক এতে রাজি না হয়ে শনিবার রাতে পাপ্পু খন্দকার ও তার সহযোগী শাহাদতের বিরুদ্ধে পলাশ থানায় অভিযোগ করেন। পলাশ থানার ওসি তদন্ত মো: হুমায়ূন কবীর জানান, ধর্ষণের অভিযোগে ওই গৃহবধুর মামলা করেছেন। অভিযুক্ত আসামীকে গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যহত আছে। নির্যাতিতা ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *