পল্লী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র কুড়িগ্রামের ৯ উপজেলায় শাখা স্থাপন করতে যাচ্ছে

সারাবাংলা

রফিকুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম থেকে:
কুড়িগ্রাম জেলা সদরের খলিলগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে ওঠা ‘পল্লী স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রটি ৬ মাস মেয়াদি কার্ডের মাধ্যমে জেলায় দরিদ্র ও হতদরিদ্রদের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছে। চিকিৎসাসেবায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আস্থা অর্জনকারী প্রতিষ্ঠানটি জেলার ৯ উপজেলায় শাখা স্থাপন করার জন্য ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট ইউএনও, টিএসও, উপজেলা ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের লিখিতভাবে অবহিত করেছে।
সাধারণ মানুষদের অল্প খরচে চিকিৎসাসেবা দিতে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সেবা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে ব্যাক্তি উদ্যোগে ২০১৯ সালে পল্লী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত করেন কুড়িগ্রামের নাজিরা ব্যাপাড়ী পাড়ার মো. আব্দুল আহাদের ছেলে শহিদুল ইসলাম শিমুল। সেবা কেন্দ্রটি চলতি করোনা মহামারীতেও বন্ধ না রেখে চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে ব্যাপক সুনামও অর্জন করেছে।
জেলায় ১২০জন সেচ্ছাসেবীর মাধ্যমে সর্বত্র গিয়ে ২শ টাকার বিনিময়ে একটি কার্ডের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষদের স্বাস্থ্যসেবার আওতায় এনে তাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। যার সুফল ভোগ করছে সর্বস্থরের রোগীরা। চিকিৎসা সেবাদানে ব্যাপক সাড়া পাওয়ায় জেলার ৯টি উপজেলায় পল্লী স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের শাখা স্থাপন করার ইচ্ছা পোষন এবং পর্যায়ক্রমে ৭২টি ইউনিয়নে মেডিকেল টিমের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া হবে বলে জানান প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা শহিদুল ইসলাম শিমুল। সেবা গ্রহীতা অনেকে জানান, পল্লী স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে অল্প খরচে এবং কোন প্রকার হয়রানি ছাড়াই আমরা দীর্ঘদিন হতে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছি। সেবা কেন্দ্রটির কার্যক্রম আরো বেগবান হোক এই আশা করি। প্রতিষ্ঠাতা শহিদুল ইসলাম শিমুল বলেন, পল্লী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের সেবাদানে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পাওয়ায় জেলার ৯ উপজেলায় খুব অল্প সময়ের মধ্যে শাখা স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। সবার সহযোগীতা কামনা করছি। কুড়িগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, সদর হাসপাতাল, কমিউনিটি ক্লিনিকের পাশাপাশি পল্লী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র চিকিৎসাসেবায় ব্যাপক ভূমিকা রাখছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *