পাকিস্তানে আশ্রীতরা জঙ্গি নন ‘শরণার্থী’ : ইমরান খান

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট : আফগানিস্তানের কট্টর সুন্নি ইসলামপন্থি তালেবান সদস্যদের ‘সৈনিক’ হিসেবে বিবেচনা করতে আগ্রহী নন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান; বরং তাদের ‘সাধারণ মানুষ’ বলেই মনে করেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন চ্যানেল পিবিএস নিউজ আওয়ারকে সম্প্রতি এক বিস্তৃত সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ইমরান খান। সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, আফগানিস্তানে সম্প্রতি তালেবানগোষ্ঠীর যে উত্থান ঘটেছে, তার জেরে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে রাজনৈতিক বা সামাজিক কোনো অস্থিরতা দেখা দেওয়ার শঙ্কা রয়েছে কি না।

এই প্রশ্নের পেছনে যুক্তি হিসেবে বলা হয়, তালেবান সদস্যরা পশতু জাতিগোষ্ঠীর অন্তর্ভূক্ত এবং পাকিস্তানেও নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী হিসেবে পশতুরা অন্যতম সংখ্যাগরিষ্ঠ জাতি। আফগানিস্তান তালেবানগোষ্ঠীর শাখা সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) দেশটিতে সক্রিয় একটি সংগঠন।

তাছাড়া পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্ত অঞ্চলসহ পুরো পাকিস্তানজুড়ে বর্তমানে ৩০ লাখেরও বেশি আফগান শরণার্থী বসবাস করছেন।

পিবিএস নিউজ আওয়ারের প্রশ্নের উত্তরে ইমরান খান বলেন, ‘আফগানিস্তান-পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী এলাকায় বর্তমানে প্রায় ৫ লাখ শরনার্থ বসবাস করছেন এবং তালেবান সদস্যরা সৈনিক নয়, সাধারণ মানুষ। যদি সীমান্ত এলকায় অস্থিরতা হয়, সেক্ষেত্রে পাকিস্তান প্রশাসনিকভাবেই এগোবে। তার আগ পর্যন্ত সাধারণ মানুষদের নিয়ে আতঙ্ক বা শঙ্কার কোনো কারণ আপাতত পাকিস্তানের নেই।’

যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ অভিযোগ করে আসছে, তালেবান সদস্যদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে পাকিস্তান এবং দেশটি তালেবানগোষ্ঠীর জন্য ‘নিরাপদ স্বর্গ’ হয়ে ‍উঠেছে।

এর প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এটি একেবারেই ভুল এবং অন্যায্য একটি ধারণা। যারা এসব কথা বলেন তাদের উদ্দেশে আমার প্রশ্ন, পাকিস্তানের কোন কোন এলাকায় এসব নিরাপদ স্বর্গ গড়ে উঠেছে- প্রমাণ হাজির করুন।’

‘যেসব শরণার্থী পাকিস্তানে আশ্রয় নিয়েছেন, তারা জঙ্গি নন, বরং নিজের দেশে সবকিছু হারিয়ে তারা পাকিস্তানে আশ্রয় নিয়েছেন। তাই তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরা পাকিস্তানের পক্ষে সম্ভব নয়।’

‘আর একটি কথা আমি বলতে চাই, টুইন টাওয়ারে হামলার পর তালেবানগোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িয়ে আন্তর্জাতিকভাবে পাকিস্তানকে হেয় করা হয়েছে। মার্কিন বাহিনীর সামরিক অভিযানের সময় পাকিস্তানের অনেক এলাকায় বোমা ফেলা হয়েছে।’

‘আমরা মনে করি, সেসময় পাকিস্তানের সঙ্গে অবিচার করা হয়েছিল। পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত নয়।’

সূত্র : এশিয়ান নিউজ নেটওয়ার্ক

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *