পাকুন্দিয়ায় ৫১ ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে ঘর

সারাবাংলা

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ থেকে : মুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় আরো নতুন ১০টি ভূমিহীন পরিবার খুঁজে পাচ্ছেন আশার আলো। এতে করে এ উপজেলায় সরকারি অনুদানে ঘর পাওয়া ভূমিহীন পরিবারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১-তে। এর আগে ৪১টি ভ‚মিহীন পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার বরাদ্দ হয়। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার খাস জমিতে এসব ঘর নির্মিত হচ্ছে।

প্রত্যেক ভূমিহীন পরিবারের জন্য ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে সেমি-পাকা ঘর নির্মিত হচ্ছে। দুই কক্ষ বিশিষ্ট এটাচ বাথরুম ও কিচেন সুবিধা রয়েছে এসব ঘরগুলোতে। ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. রওশন করিম। তিনি আরও জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভূমি ও আশ্রয়হীন পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। আগামী জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে আশ্রয়হীন এসব পরিবারের কাছে ঘর হস্তান্তর করবেন। সে মোতাবেক এ উপজেলায়ও প্রথম দফায় ৪১টি ও দ্বিতীয় দফায় আরো ১০টি ঘর নির্মাণের বরাদ্দ হয়েছে।

ইতিমধ্যে নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব (বাজেট) মো. নূরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মাসউদ এবং জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. মোকাররম হোসেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাহিদ হাসান ও পাকুন্দিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন। তারা নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই এসব ঘরের নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। পাকুন্দিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাহিদ হাসান জানান, উপজেলার ৫১টি ভূমিহীন পরিবারকে সরকারি অনুদানে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে। ভূমিহীন পরিবার বাছাই এবং ঘরের নির্মাণ কাজে যেন কোনো অনিয়ম-দুর্নীতি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *