পাত্রখোলা চা-বাগান লেকে পাখির কলতান

সারাবাংলা

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি : অতিথি পাখিদের কলকাকলিতে মুখরিত মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের পাত্রখলা চা-বাগানের ১৮ নং সেকশনের অবস্থিত লেক। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি ও পাখ-পাখালির অভয়ারণ্য মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারো শীত আসার সঙ্গে সঙ্গেই দলে দলে আসছে অতিথি পাখিরা। ভোরের শিশির সিক্ত চারদিকে সবুজ চা-বাগানে পাখিদের কলতান পাখি প্রেমীদের করে তুলছে চঞ্চল। পাখি দেখতে দেখতে সকাল-দুপুর-বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা নামছে পাখিদের অগোচরেই। পাখিদের ঝাঁক বেঁধে উড়ে বেড়ানো ও লেকের জলে ঝাঁপাঝাঁপি এ যেন এক অন্যরকম সৌন্দর্য। এ সব দৃশ্য দেখতে প্রতিদিন ছুটে আসছেন প্রকৃতি প্রেমীরা। চা-বাগান কর্তৃপক্ষরা জানান, পাত্রখলা চা বাগানের ১৮নং সেকশনের এ লেকে শীত আসলেই আগমন ঘটে অতিথি পাখিদের। পাখির কিচিরমিচির শব্দ আর ঝাঁক বেঁধে উড়ে বেড়ানো ও পানিতে ঝাঁপাঝাঁপিতে যেন অন্যরকম সৌন্দর্যে সাজে লেকটি। তাছাড়া লেকের সৌন্দর্য রক্ষায় নেওয়া হয়েছে আলাদা পাহারার ব্যবস্থা। হাজার হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে আসা অতিথি পাখিদের বিরক্ত না করতে দর্শনার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। পাখি দেখতে আসা মুস্তাফিজুর রহমান ও রুহুল ইসলাম হৃদয় বলেন, সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পাখিদের কিচিরমিচির শব্দ আর ঝাঁক বেঁধে উড়ে বেড়ানোর দৃশ্য দেখতে খুবই ভালো লাগে। সারা দিনই এখানে থাকে পাখি। এমন কাছ থেকে দেশের আর কোথাও অতিথি পাখি দেখা যায় না। বিভিন্ন স্থান থেকে আসা অতিথি পাখিদের অবাদ বিচরণের ব্যবস্থা করা হলে দিন দিন আমাদের দেশে পাখির সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। অতিথি পাখি যাতে অবাধে বিচরণ করতে পারে সে দিকে বন বিভাগের নজর রাখা উচিত। এ বছর দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কালকোর্ট, ধনেশ পাখি, পানকৌড়ি, মচরংভূতি হাঁস, সাদা বক, লালচে বক, সাপ পাখি, কাললেজ জহুরালীসহ নানা প্রজাতির অতিথি পাখিদের আগমন ঘটেছে চা বাগানের এ লেকে।

দেশবিদেশের গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *