পাষন্ড স্বামীর কান্ড

সারাবাংলা

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি : ঢাকার কেরানীগঞ্জে এক গৃহবধূকে হাত-পায়ের রগ কেটে ও যৌনাঙ্গে ছুড়িকাঘাত করে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী। নিহত স্ত্রীর নাম জোসনা আক্তার (২৫)। সে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের জননী বলপেন কারখানাতে বই বাইন্ডিংয়ের কাজ করতো। গতকাল বুধবার ভোরে উপজেলার তেঘরিয়া ইউনিয়েনের পশ্চিমদী মোল্লাবাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই নিহত জোসনার বাবাকে মাথায় আঘাত করে ৬ বছরের লামিয়া ও সাড়ে ৩ বছরের সামিয়া নামের দুটি কন্যা সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে যান নিহতের স্বামী সুমন মোল্লা। খবর পেয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। পরে নিহত জোসনার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। নিহত জোসনার বাবা জাফর হাওলাদার জানান, ১৩ বছর আগে জোসনা আক্তারের সঙ্গে ঝালকাঠির নলসিটি রায়পুরের বাসিন্দা জহুর আলীর ছেলে সুমনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর জানতে পারি সে নেশা করে। বিয়ের পর থেকে সুমন জোসনাকে মারধর করতো। মারধরের ব্যাপারে এলাকায় একাধিকবার শালিস করেছে, ঠিকভাবে সংসারের খরচ দিতো না। তাই আমার ভাড়াবাসার পাশের বাড়িতে ওদের বাসা ভাড়া করে দিই। সুমন বিভিন্ন সময় আমার মেয়েকে নানাভাবে যৌতুকের জন্য চাপ দিতো। আমি সামান্য রিকশাচালক। তারপরও যখন যেভাবে পেরেছি, সাহায্য করছি। গত বুধবার সকালে খবর পাই মঙ্গলবার রাতে আমার মেয়েকে সুমন মারধর করেছে। সকালে মেয়ের বাসায় যাবার পথে আমাকে সুমন কাঠের একটি শক্ত লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে। সঙ্গে সঙ্গে আমি মাটিতে পড়ে যাই এই সুযোগে সুমন মেয়ে দুটিকে নিয়ে আমার অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে জানতে পারি সে আমার মেয়েকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমি আমার মেয়ের হত্যাকারীর ফাঁসি চাই। নিহত জোসনার ছোট বোন হোসনা বেগম জানান, সকালে ঘরে ঢুকে দেখি আমার বোনকে সুমন হত্যা করেছে। সে আমার বোনের পেট কেটে ফেলেছে। হাতের রগ কেটেছে। পিঠে চাকু মেরেছে। আমার বোনের হত্যাকারীর কঠিন বিচার চাই। সুমন একজন মাদকাসক্ত। দয়া করে আপনারা জোসনার দুই মেয়েকে ওর হাত থেকে উদ্ধার করুন। সুমন ওদের কিছু করে ফেলতে পারে। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, সকালে স্থানীয়ভাবে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছি মাদকাসক্ত স্বামী রাতের কোন এক সময়ে স্ত্রীকে হত্যা করে দুই সন্তান নিয়ে উধাও হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের পিতা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এঘটনায় আসামিকে গ্রেফতার করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

দেশবিদেশের গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *