পোশাককর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় দুজনকে যাবজ্জীবন

আইন আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর আদাবরে এক পোশাককর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় দুজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া প্রত্যেক আসামিকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাস করে কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ রোববার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫-এর বিচারক সামছুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ পাওয়া দুই আসামি হলেন সজীব ঢালী ও আবু হাসান ওরফে সাঈদ।

এ তথ্য নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) আলী আসগর স্বপন গণমাধ্যমকে বলেন, রায় ঘোষণার সময় দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত দুই আসামি আদালতে হাজির ছিলেন। পরে তাঁদের সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া, এ মামলায় পলাতক দুই আসামি আকাশ ওরফে মোসলেম এবং আনোয়ার বয়াতীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাঁদের খালাস দিয়েছেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৮টায় পোশাক কারখানায় কাজ শেষে বাসায় ফিরছিলেন ওই নারী। আদাবর থানাধীন শ্যামলী হাউজিং প্রকল্পের পানির পাম্পের সামনে পৌঁছালে সজীব ঢালী, আবু হাসানসহ অজ্ঞাত পরিচয় দুজন ছেলে তাঁর গতিরোধ করে টেনে-হিঁচড়ে শান্তা ওয়েস্টার হাউজিং ও আজিম গার্মেন্টসের ফাঁকা মাঠে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনায় পরের দিন ভিকটিমের মা আদাবর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১)/৩০ ধারায় মামলা করেন। মামলার পরে পুলিশ পরিদর্শক ইসমত আরা এমি মামলাটি তদন্ত করে চারজনের বিরুদ্ধে ঢাকার সিএমএম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *