প্রকৃতির সৌন্দর্য্যরে লীলাভূমি হাওর মেঘ আর জলের মিতালি

সারাবাংলা

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ থেকে
চলছে বর্ষাকাল। কিশোরগঞ্জের হাওরগুলো যেন এক সাগর। দ্বীপের মতো ভেসে আছে গ্রামগুলো। হাওরের মাঝ দিয়ে চলে গেছে আঁকাবাঁকা রাস্তা। হাওরগুলো এখন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি। নয়নাভিরাম দৃশ্য উপভোগ করতে ভিড় জমাচ্ছেন অনেক দর্শনার্থী। পর্যটন খাতে বিপুল সম্ভাবনার হাতছানি দিচ্ছে এ হাওরগুলো। কিশোরগঞ্জের ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় হাওরের বিশাল জলরাশির মধ্য দিয়ে চলে গেছে নান্দনিক অলওয়েদার সড়ক। তিনটি উপজেলায় ১ হাজার ২৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে অল ওয়েদার রোড। এর মধ্যে ৪৭ কিলোমিটার উঁচু পাকা সড়ক, ৩৫ কিলোমিটার সাবমার্সেবল সড়ক ও দৃষ্টিনন্দন সেতু ধরে সারা বছর মানুষ চলাচল করে। এসব সড়কে ভিড় জমাচ্ছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ভ্রমণপিপাসুরা। প্রতিদিনই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে হাওরের অপরূপ সৌন্দর্যের ছবি। অল ওয়েদার সড়কের দুই পাশে থৈ থৈ জল আর আকাশে সাদা মেঘের ভেলা, মেঘ আর জলের মিতালি। হাওরের এ সৌন্দর্যই আকৃষ্ট করছে পর্যটকদের। হাওরে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের দৃশ্য দেখে মনে হয়, সাগর পারে। ইটনা উপজেলার শিমুলবাগে জনমানবহীন ভাসমান বনভূমির নাম রাংচাবন। সারি সারি হিজল, তমাল, করচ গাছ যেন প্রহরীর মতো দাঁড়িয়ে আছে সেখানে। মিঠামইন উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নের ‘দিল্লির আখড়া’র দৃশ্য সবার কাছে উপভোগ্য। এখানে রয়েছে শত শত হিজল গাছ। ৪০০ বছরের পুরনো এই আখড়া সম্পর্কে জানতে পর্যটকরা ভিড় করেন সেখানে। এছাড়া, অষ্টগ্রামে প্রায় ৪৫০ বছরের পুরনো পাঁচ গম্বুজ বিশিষ্ট কুতুব শাহ মসজিদ, আওরঙ্গজেব মসজিদ, ঈশা খাঁর সময়ে নির্মিত ইটনার শাহী মসজিদ, মোঘল আমলে নির্মিত নিকলীর গুরুই মসজিদ পর্যটকদের দৃষ্টি কাড়ে। ঢাকা থেকে ঘুরতে আসা জানাতুল ফেরদৌস বলেন, ‘ফেসবুকে হাওরের বিভিন্ন ছবি দেখে বার বার মনে হয়েছে, কখন যাব। এখানে এসে মনে হচ্ছে, আমি দেশের বাইরে কোথাও ভ্রমণে বেড়িয়েছি।’
পর্যটকদের জন্য হাওর এলাকায় গড়ে উঠেছে বেশকিছু হোটেল ও রেস্তোরা। এখানে পর্যটকরা থাকার পাশাপাশি হাওরের বিভিন্ন প্রজাতির মাছের স্বাদ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।
সিলেট থেকে ট্রলারে করে হাওরে ঘুরতে আসা সুলতান বলেন, ‘এটা অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতা, যা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। প্রকৃতিকে যারা ভালবাসেন তাদের অবশ্যই কিশোরগঞ্জের হাওরে আসা উচিত।’
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম বলেন, প্রাকৃতিকভাবেই হাওরের সৌন্দর্য নয়নাভিরাম। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে সারা বছর চলাচলের উপযোগী অল ওয়েদার রোড। সরকারি-বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা থাকলে কিশোরগঞ্জের হাওর হতে পারে দেশের সেরা পর্যটক স্পটগুলোর মধ্যে অন্যতম।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *