প্রতিশ্রুতির বার্তা নিয়ে ভোটারের দুয়ারে মনু

রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভোটের আর মাত্র চার দিন বাকি। তাই নিরন্তর ছুটে চলছেন ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু। নৌকা প্রতীকে ভোট চাইতে আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে রাত-দিন ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে যাচ্ছেন তিনি। কখনো হেঁটে, কখনো রিকশায়, কখনো খোলা পিকআপে চড়ে প্রচার-প্রচারণা আর গণসংযোগে অংশ নিচ্ছেন এই প্রার্থী।

প্রতিদিন বেলা ১১টায় প্রচারণা শুরু করেন তিনি। হাতে থাকে লিফলেট, পেছনে নেতাকর্মী। একেকদিন একেক এলাকায় উন্নয়নের বার্তা নিয়ে হাজির হচ্ছেন নৌকার এই প্রার্থী। এসব কর্মসূচিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তার সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন। ভোটারদের হাতে হাতে লিফলেট তুলে দিয়ে নৌকায় ভোট চাচ্ছেন তারা। এ সময় গত কয়েক বছরে সারা দেশে বিভিন্ন খাতে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরছেন কাজী মনিরুল ইসলাম মনু।

আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আগামী ১৭ অক্টোবর ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে। এ আসনে দীর্ঘদিন ধরে কর্তৃত্ব ধরে রেখেছে ক্ষমতাসীন দলটি।

টানা তিনবারসহ মোট চারবার ওই এলাকার সংসদ সদস্য ছিলেন হাবিবুর রহমান মোল্লা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আশা করছেন, যেহেতু এই আসনটিতে তাদের দলীয় সংসদ সদস‌্য ছিলেন এবং এলাকার উন্নয়নে কাজ করেছেন, উপ-নির্বাচনেও ভোটাররা তাদের রায় নৌকার পক্ষে দেবেন।

কেন্দ্রে এসে নৌকায় ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে কাজী মনিরুল ইসলাম মনু বলেন, ‘আমি এই এলাকার সন্তান। সব সময় আপনাদের পাশে ছিলাম। নির্বাচিত হলে আপনাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখব। এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করার সুযোগ দিন।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত কয়েক বছরে সরকার যে উন্নয়ন করেছে, তার ঢেউ লেগেছে ঢাকা-৫ আসনেও। এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় সমর্থন অব্যাহত রাখুন। আমি গণমানুষের এমপি হতে চাই।’

আওয়ামী লীগের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগসহ অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। প্রচার-প্রচারণার শুরু থেকে ওয়ার্ড-ভিত্তিক কমিটি গঠন করে দিয়েছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ। সে অনুযায়ী ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। সংগঠনের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন দলের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলামকে নিয়ে প্রতিদিন ভোটরদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নৌকায় ভোট চাচ্ছেন। সোমবার খোলা পিকআপে বড় শোডাউন করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। ব্যানার, ফেস্টুন- প্ল‌্যাকার্ড নিয়ে দুই শতাধিক মোটরসাইকেলে শোডাউন করে সংগঠনটি। নির্বাচনী এলাকার ধোলাইপাড়, দনিয়া, শনির আকড়া, জিয়া সরণি রোড, মেরজা নগর, রায়েরবাগসহ বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে শোডাউনটি। মঙ্গলবারও ঢাকা-৫ আসনের ৬৩, ৬৪ ও ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচার চালান সংগঠনটির সভাপতি কামরুল হাসান রিপন। এ সময় মনিরুল ইসলাম মনু উপস্থিতি ছিলেন।

কামরুল হাসান রিপন বলেন, ‘যে এলাকায় যাচ্ছি, সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের ভালোবাসা আর সমর্থন পাচ্ছি। তারা কথা দিচ্ছেন, শেখ হাসিনার উন্নয়নের মার্কা নৌকায় তাদের আস্থা আছে, ১৭ অক্টোরব ভোটের মাধ্যমে তারা সেই রায় দেবেন।’

কাজী মনিরুল ইসলাম মনুর পক্ষে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন ঢ‌াকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ ও ওয়ার্ড যুবলীগের নেতাকর্মীরাও। যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের নির্দেশে ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়েই ভোট প্রার্থনা করছেন তারা। নির্বাচনী আসনে ১৪টি ওয়ার্ডে পৃথক পৃথক টিম করে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছে যুবলীগ।

মঙ্গলবার নৌকায় ভোট চেয়ে নির্বাচনী গণসংযোগ করেছে যুবলীগ। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৬৩ নং ওয়ার্ডে যুবলীগের পক্ষে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবুর নেতৃত্বে বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

এদিকে, মঙ্গলবার কাজী মনিরুল ইসলাম মনুর পক্ষে ডেমরার সারুলিয়া-ডগাইর, বাঁশেরপুল ও যাত্রাবাড়ীতে আওয়ামী লীগের পথসভা হয়েছে। পথসভায় দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, ‘জনগণ এখন অনেক সচেতন। ফলে বিরোধীদের চক্রান্ত কোনো কাজে আসবে না। উন্নয়নের পথে তাদের কোনো ষড়যন্ত্র বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও দুর্যোগবিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু ও মারুফা আক্তার পপি।

নির্বাচনী আসনের ৬২ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদেরকে সঙ্গে নিয়ে দনিয়ার শেখদি আবদুল্লাহ মোল্লা স্কুল অ‌্যান্ড কলেজে গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক হয়েছে। এতে অংশ নেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য পারভীন জামান কল্পনা, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক আকতার হোসেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *