প্রথম টেস্টে হারের বিষয়ে বৈঠক ডাকছে পাপন

খেলাধুলা

ডেস্ক রিপোর্ট: শতভাগ পুরো শক্তির না হলেও, দুই বছর আগে এর চেয়ে অনেক শক্তিশালি দল নিয়েও টেস্টে বাংলাদেশের সঙ্গে জিততে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অথচ এবার তার চেয়ে অনভিজ্ঞ ও আনকোরা দল নিয়েও প্রথম টেস্ট জিতে সিরিজে ১-০’তে এগিয়ে ক্রেইগ ব্রাথওয়েটের দল।

বলার অপেক্ষা রাখে না, করোনায় মূল বহরের বড় অংশ বিশেষ করে নামি ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই বাংলাদেশ সফর থেকে বিরত রয়েছেন। তাদের বিকল্প হিসেবে যাদের নেয়া হয়েছে, তাদের প্রায় ৮০ ভাগ নবীন, অনভিজ্ঞ। এর মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের এবারের ওয়ানডে দলটি বেশি দুর্বল।

ইতিহাস জানাচ্ছে, একই মাঠে হওয়া এর আগের টেস্টে নবীন টেস্ট দল আফগানিস্তানের কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে সেই ম্যাচে প্রথম থেকেই ব্যাকফুটে ছিল স্বাগতিকরা। এবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ৫ দিনে শেষ হওয়া টেস্টের প্রথম চারদিন সুবিধাজনক অবস্থায় ছিল মুমিনুলের দল। কিন্তু শেষ দিনে গিয়ে আর পারেনি।

এই ম্যাচ দিয়ে টেস্ট ক্যারিয়ার শুরু করা কাইল মায়ারসের অতিমানবীয় ব্যাটিংয়ের কাছেই হেরেছে টাইগাররা। প্রিয় জাতীয় দলের এ অপ্রত্যাশিত পরাজয়ে ভক্ত-সমর্থকরা যারপরনাই হতাশ। সমালোচনার নহর বয়ে না গেলেও হতাশা চারিদিকে। সবাই যে যার মত করে হারের সম্ভাব্য কারণ খোঁজায় ব্যস্ত।

বিসিবির অভ্যন্তরেও হয়েছে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নড়েচড়ে বসেছেন। সোমবার রাতে গুলশানে নিজ বাসায় বোর্ডের কয়েকজন শীর্ষ পরিচালককে নিয়ে জাতীয় দলের এ ব্যর্থতার সম্ভাব্য কারণ খোঁজারও চেষ্টা করেছেন বিসিবি বিগ বস।

তাৎক্ষণিকভাবে ঐ সভা শেষে কেউ মুখ খোলেননি। তবে জানা গেছে, বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন নিজ বাসায় অন্তত তিন-চার ঘণ্টা একান্তে কথা বলেন মাহবুব আনাম, আকরাম খান, ইসমাইল হায়দার মল্লিক, সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমনের সঙ্গে। সেখানে ম্যাচের চালচিত্র নিয়ে কথাবার্তা হয়। ব্যর্থতার সম্ভাব্য কারণও খুঁজে বের করার চেষ্টা চলে।

এদিকে বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের ঐ সভায় জাতীয় দলের দুই সাবেক অধিনায়ক প্রথম টেস্ট ক্যাপ্টেন নাইমুর রহমান দুর্জয় আর খালেদ মাহমুদ সুজনকে দেখা যায়নি। জানা গেছে, তাদের ডাকা হয়নি। একইভাবে বোর্ডের অপর সিনিয়র পরিচালক জালাল ইউনুসও ছিলেন না সোমবার রাতে বোর্ড সভাপতির বাসায়।

শুধু তারাই নন, বায়ো সিকিউর বাবলে থাকায় বিসিবি সভাপতির বাসায় ডাকা বৈঠকে থাকতে পারেননি জাতীয় দলের বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক, হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, ব্যাটিং কোচ জন লুইস, পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনরাও। তবে মুঠোফোনের মাধ্যমে তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন পাপন, এমনটাই জানা গেছে।

বিসিবি বসের বাসায় হওয়া এ বৈঠকে আলোচনা হয়েছে পরাজয়ের কারণ নিয়েই। যেখানে উঠে এসেছে অপর্যাপ্ত প্রস্তুতির বিষয়টি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার আগে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির দুইটি টুর্নামেন্ট খেললেও, বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা কোনো দীর্ঘ পরিসরের ম্যাচ খেলেননি। এ বিষয়টি বেশ জোর দিয়েই আলোচনা হয়েছে জরুরি বৈঠকে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *