প্রধানমন্ত্রী নিজে কক্সবাজার উন্নয়নের খেয়াল রাখেন : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

সারাবাংলা

কক্সবাজার প্রতিনিধি:
যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নিজে কক্সবাজার উন্নয়নের বিষয়ে সব সময় খেয়াল রাখেন। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হয়েছে এখন তার পাশে আরো একটি নতুন ফুটবল স্টেডিয়াম হবে। রামুতে আধুনিক বিকেএসপি কমপ্লেক্স হচ্ছে। এ ছাড়া বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়ামের পাশে ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়ামকে আরও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। তাই কক্সবাজারই হবে দেশের মধ্যে আগামীর ক্রীড়া নগরী। গতকাল বৃহস্পতিবার সাড়ে ৩টায় কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়াম আধুনিকায়ন ও ইনডোর স্টেডিয়ামের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন কাজের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। স্পোর্টস ট্যুরিজমকে প্রমোট করার জন্য কক্সবাজারে ক্রীড়ার সব স্থাপনা করা হচ্ছে, তাই সবাইকে ক্রীড়াঙ্গনে উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, কক্সবাজারে নানাবিধ উন্নয়নের পাশাপাশি ক্রীড়া ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব আকতার হোসেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মাসুদ করিম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আমিন আল পারভেজ, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন, অনুপ বড়ুয়া অপু, আবছার উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল করিম মাদু, যুগ্ন সম্পাদক হেলাল উদ্দিন কবির, শাহিনুল হক মার্শাল, কোষাধ্যক্ষ রাশেদ হোসাইন নান্নু, সদস্য রতন দাশ, প্রভাষক জসিম উদ্দিন, এম.আর মাহবুব, হারুন অর রশিদ, আয়েশা সিরাজ, আলী রেজা তসলিম, পরেশ দে ও ক্রীড়া সাংবাদিক-সংগঠক আনোয়ার হাসান চৌধুরী প্রমুখ। পরে প্রতিমন্ত্রী বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়াম ঘুরে দেখেন। উল্লেখ্য, প্রায় ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণ এবং বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়াম আধুনিকায়নের কাজ চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *