প্রবাসীর স্ত্রীর কবজি কাটলেন যুবক, মেয়েকে কুপিয়ে জখম

সারাবাংলা

লক্ষীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে এক সৌদি আরব প্রবাসীর ঘরে ঢুকে তার স্ত্রীর দুই হাতের কবজি কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়া ১০ বছর বয়সী মেয়ে সাদিয়া আক্তারকেও কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের বালাইশপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

মা ও মেয়ের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. আসিফ মাহমুদ। অবস্থায় গুরুতর হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে অভিযুক্ত জাহিদ হোসেন ও সোহেল নামে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। বালাইশপুর এলাকা থেকে রাতে সাড়ে ১০টার দিকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার বালাইশপুর দেওয়ান বাড়ির সৌদি প্রবাসী নবী উল্লাহর ঘরে ঢুকে তার স্ত্রী মরিয়ম বেগমকে এলোপাতাড়ি কুপাতে থাকে। এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূর দুই হাতের কবজি কেটে আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। পরে ১০ বছর বয়সের শিশুকন্যা সাদিয়া আক্তার এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। মা ও মেয়েকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে আনার পর অবস্থায় আশংকাজনক হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

গৃহবধূর স্বজন ও স্থানীয়রা বলছেন, হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত বখাটে জাহিদ নামে এক যুবককে চিনতে পেরেছেন ওই গৃহবধূ। তবে কী কারণে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে এখনো কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত আজিজুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত জাহিদ হোসেন ও তার সহযোগী সোহেলকে আটক করা হয়েছে। এ হামলার সঙ্গে আরও কারা জড়িত আছে, তাদের চিহিৃত করে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। কী কারণে এ হামলার ঘটনা সে বিষয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *