প্রস্তুতি নিয়ে সাকিবের আক্ষেপ

খেলাধুলা

খেলাধুলা ডেস্ক : নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ক্রিকেটে ফেরার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে সেপ্টেম্বর মাসে অনুশীলন সেশন করেছেন সাকিব।

বিকেএসপিতে ৪ সপ্তাহের নিবিড় অনুশিলনের পরও প্রস্তুতি নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেনসাকিব আল হাসান। তবে নিষিদ্ধ থাকায় তখনও বিসিবির সুযোগ-সুবিধা ব্যবহারের অনুমতি তার ছিল না। তাই অনুশীলনের জন্য তিনি বেছে নিয়েছিলেন তার বেড়ে ওঠার প্রতিষ্ঠান বিকেএসপিকে।

সেখানে তার ঘনিষ্ঠ দুই কোচ নাজমুল আবেদীন ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের তত্ত্বাবধানে কঠিন সূচি মেনে অনুশীলন করেন সাকিব। ক্রিকেটের ফিটনেস ও স্কিল ট্রেনিংয়ের পাশাপাশি বিকেএসপির বক্সিং কোচ, সুইমিং কোচ, অ্যাথলেটিকস কোচের সঙ্গেও কাজ করেন নিজেকে প্রস্তুত করে তুলতে।

তখনকার সূচি অনুযায়ী, বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরে দ্বিতীয় টেস্ট দিয়ে ফেরার কথা ছিল সাকিবের। কিন্তু শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর অনুশীলন অসমাপ্ত রেখেই যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে ফিরে যান তিনি।

এখন নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত সাকিব নিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রশ্নোত্তর পর্বে জানালেন, অনুশীলনের এই ঘাটতিটুকু পুষিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা তার আছে।

“ বিকেএসপির অনুশীলন খুবই ভালো ছিল। ওই ট্রেনিং আমার খুব দরকার ছিল। যদিও আমার ইচ্ছে ছিল আরও ১৫-২০ দিন করার। যেহেতু শ্রীলঙ্কা সিরিজটি হয়নি, ওটা আর চালিয়ে যাওয়া হয়নি। চলে এসেছি যুক্তরাষ্ট্রে। আরও ১৫-২০ দিন করতে পারলে পরের ১-২ বছরের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুতি হয়ে যেত।”

“তবে যেহেতু সামনে সময় আছে, সামনে একটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট আছে, ওই ১৫-২০ দিনের ট্রেনিংয়ের যে গ্যাপটি ছিল, আমার ধারণা আমি পূরণ করতে পারব।”

পাঁচটি দল নিয়ে নভেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে হওয়ার কথা বিসিবির এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। তার আগে হতে পারে প্লেয়ার্স ড্রাফট। এই টুর্নামেন্ট দিয়েই আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রিকেটে ফিরবেন সাকিব।

তার আগে অবশ্য আগামী সোমবার আরও ১১২ ক্রিকেটারের সঙ্গে ফিটনেস পরীক্ষা দিতে হবে এই অলরাউন্ডারকে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে বৃহস্পতিবার রাতেই তার দেশে ফেরার কথা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *