ফেনীতে সেপটিক ট্যাংক থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

সারাবাংলা

ফেনী প্রতিনিধি: ফেনী শহরের মনির উদ্দিন সড়কের তাসপিয়া ভবনের সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে মো. ইউনুছ বাবু (২২) নামে এক যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগেরদিন শুক্রবার ওই ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে ইউনুছের বন্ধু শাহরিয়ারকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

নিহত ইউনুছ চীনের আহোট ইউনিভার্সিটিতে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করতেন। তিনি শহরের শাহীন একাডেমী সড়কের একটি বাসায় থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি সোনাগাজীর তাকিয়া বাজারের পাইকপাড়ার সওদাগর বাড়ি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আতোয়ার রহমান, ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন, ফেনী শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুদ্বীপ রায়সহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার ওই ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় মো. শাহরিয়ারকে উদ্ধার করা হয়। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ভবনের কেয়ারটেকার মোজাম্মেল হক শাহিন তাদের দুজনকে কুপিয়ে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে গেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, সে ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত নয় পুলিশ। এ ঘটনায় শুক্রবার অভিযুক্ত শাহীনকে আটক ও রক্তমাখা একটি চাপাতি জব্দ করা হয়।

পুলিশ জানায়, শাহরিয়ার ও ইউনুছ দু’জন বন্ধু। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাতে তারা দু’জন একসঙ্গে ঘর থেকে বের হয়েছিলেন। শনিবার রাতে শাহরিয়ারকে আহত অবস্থায় সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার করার পর ইউনুছের খোঁজ না পেয়ে স্বজনরা চিন্তিত হয়ে পড়েন।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে বাবুর মা রেজিয়া বেগম শাহরিয়ারের বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা করেন। দু’দিন ধরে ইউনুছের কোনো খোঁজ না পাওয়ায় তিনি ধারণা করেন, ইউনুছকেও মেরে সেপটিক ট্যাংকের ভেতর ফেলা হয়েছে। এরপরই পুলিশ ওই সেপটিক ট্যাংকে তল্লাশি চালিয়ে ইউনুছের লাশ উদ্ধার করে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *