বগুড়ায় আওয়ামী লীগ কর্মীকে গলা কেটে হত্যা

সারাবাংলা

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শিবগঞ্জে মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা (৫২) নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে হাত-পায়ের রগ ও গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার (২১ অক্টোবর) সকালে তার বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড় থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা শিবগঞ্জ থানার পশ্চিম জাহাঙ্গীরাবাদ গ্রামের মৃত আকবর আলীর ছেলে। তিনি শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য, একই ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও এমএবি ইট ভাটার মালিক ছিলেন।

জানাগেছে, মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর তিনি বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরে আলাদীপুরে তার ইট ভাটায় যাওয়ার কথা বলে বের হন। রাত ২টা পর্যন্ত তার স্ত্রী ফোন করলেও কেউ রিসিভ করেনি। বুধবার সকালে বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড়ে মোস্তাফিজারের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পান প্রতিবেশীরা। পরে থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, পুকুর পাড়ে মরদেহ পাওয়া গেলেও সেখানে হত্যা করার কোনো আলামত নেই।

একারণে তারা ধারণা করছেন মোস্তাফিজারকে অন্য কোথাও হত্যা করে মরদেহ তার বাড়ির কাছে পুকুর পাড়ে ফেলে রাখা হয়েছে। নিহতের হাত-পায়ের রগ কাটা ছাড়াও মাথায় আঘাতের চিহ্ন এবং পা ভাঙা ছিল।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানাযায,মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা এক সময় সন্ত্রাসী ছিলেন। তার নামে ছিনতাই, ডাকাতি, চোরাকারবারী ছাড়াও বিভিন্ন অভিযোগে একাধিক মামলা ছিল। গত ১০ বছরের মধ্যে তিনি এলাকায় বালুর ব্যবসা করে ইট ভাটার মালিক হয়ে যান। এছাড়াও তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য পদ লাভ করেন।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বার্তা২৪.কম-কে বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের কোনো কারণ জানা যায়নি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *