বঙ্গবন্ধু হত্যায় দণ্ডিত ৪ খুনির রাষ্ট্রীয় খেতাব স্থগিতের নির্দেশ

আইন আদালত জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় দণ্ডিত চার খুনির মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বের জন্য পাওয়া রাষ্ট্রীয় খেতাব স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবীর করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আজ মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ নির্দেশ দেন।

বঙ্গবন্ধুর যে চার খুনির রাষ্ট্রীয় খেতাব স্থগিতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তারা হলেন শরীফুল হক ডালিম, এস এইচ এম বি নূর চৌধুরী, এ এম রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দীন ওরফে মুসলেম উদ্দীন।

রিটকারী আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ২ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাসের পক্ষে অ্যাডভোকেট এ কে খান এ আবেদনটি করেন।

এতে বঙ্গবন্ধুর খুনি শরীফুল হক ডালিম, এস এইচ এম বি নূর চৌধুরী, এ এম রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দীন ওরফে মুসলেম উদ্দীনের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিল চাওয়া হয়। পাশাপাশি খেতাব বাতিলে সরকারের নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করা হয়।

আবেদনে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ১৯৭৩ সালে সরকার ৭ জনকে বীরশ্রেষ্ঠ, ৬৮ জনকে বীর উত্তম, ১৭৫ জনকে বীর বিক্রম ও ৪২৬ জনকে বীরপ্রতীক উপাধি দেয়। একই বছরের ১৫ ডিসেম্বর এ সংক্রান্ত গেজেট জারি হয়। এর মধ্যে শরীফুল হক ডালিমকে বীর উত্তম, নুর চৌধুরীকে বীর বিক্রম এবং রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দিনকে বীরপ্রতীক খেতাব দেওয়া হয়।

আবেদনে আরো বলা হয়, জাতির পিতাকে হত্যাকারী এই চারজনের খেতাব এখনো বাতিল করা হয়নি।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এ রকম পরিস্থিতিতে খেতাব বাতিলের নজির রয়েছে।

জাতির পিতা হত্যা মামলায় দণ্ডিত ও পলাতক এই চার আসামির খেতাব বাতিলে বিবাদীর নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, এ মর্মে রুলের আর্জিসহ এই খেতাব ফিরিয়ে নেওয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়।

আবেদনে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে বিবাদী করা হয়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *