বরযাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনা নোয়াখালীতে নারী নিহত ॥ আহত ১২

সারাবাংলা

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াখালীতে বেপরোয়া গতির বরযাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় নারী-পুরুষ, শিশুসহ আরও অন্তত ১২ বরযাত্রী আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে গুরুত্বর আহত ২জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্রগ্রাম পাঠানো হয়েছে এবং ১জনকে ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। নিহত গৃহবধূ সুমি আক্তার (৩০)। সে এওজবালিয়া ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে। তবে তাৎক্ষণিক আহতদের নাম ঠিকানা জানা যায়নি।  শুক্রবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে সোনাপুর টু আলেকজান্ডার সড়কের সমিতি মসজিদ এলাকায় বরযাত্রীবাহী বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা খেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্র জানায়, সদর উপজেলার এওজবালিয়া ইউনিয়নের মান্নান নগর থেকে লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলায় বিয়ে বাড়িতে যাচ্ছিল বাসটি।
যাত্রা পথে বাসটি পার্শ্ববর্তী কালাদরাপ ইউনিয়নের সমিতি মসজিদ এলাকায় পৌঁছলে বাসের চাকা ফেটে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি গাছের সাথে ধাক্কা খেলে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানিয়েছে, বাসে ৪০-৫০ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে ১ নারীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ১২জন। আহতরা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৩জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পরবর্তীতে এ ঘটনায় আইনানুগ প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *