বরিশালের ৬ হাসপাতালে ১৯ জনের মৃত্যু

জাতীয় লিড ১ সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট : বরিশাল বিভাগের ছয় হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ১০ জন এবং করোনায় ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৩৩ জনের। আরটিপিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ৬২ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

বুধবার (১৪ জুলাই) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রমণ তথ্যে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে বরিশাল জেলায় ২০২ জন। এ পর্যন্ত এই জেলায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৩০৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় তিনজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ১৪৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৯৪৬ জন।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ঝালকাঠি জেলায় নতুন ১২৭ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হলেন ৩ হাজার ২১ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৪৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০৫ জন।

পিরোজপুর জেলায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৪৮ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩৩৭ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৫১ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৮১ জন।

পটুয়াখালী জেলায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ৪৭ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২০ জন। ২৪ ঘণ্টায় দুজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৬০ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৪০৯ জন।

ভোলা জেলায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ৪৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৩৬৯ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬৯ জন।

বরগুনায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ৬৬ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত  হয়েছেন ২ হাজার ৪৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় চারজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৪০ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৮১ জন।

মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে করোনা উপসর্গ নিয়ে ১০ জন এবং করোনা আক্রান্ত তিনজন শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে, তিনজন বরগুনা ১০০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে এবং একজন করে বাবুগঞ্জ, বামনা ও কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিচালকের তথ্য সংরক্ষক জাকারিয়া খান স্বপন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের আইসোলেশনে ২০ জন ভর্তি হন। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে ২৫৯ জন চিকিৎসাধীন রোগী আছেন। যার মধ্যে ৯০ জনের করোনা পজিটিভ, ১৬৯ জন আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় ১৮৮ জনের নমুনা আরটি পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করানো হয়েছে। এর মধ্যে ১১৮ জন পজিটিভ ও ৬৯ জন করোনা নেগেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগের ২৪ ঘণ্টায় (মঙ্গলবার) বিভাগে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছিল ১৫ জনের। আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিলেন ৮৭৯ জন। আক্রান্তের হার ছিল ৫৫ শতাংশ।

বরিশাল বিভাগের পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় ২০২০ সালের ৯ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সেই থেকে বুধবার (১৪ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত বিভাগের ৬ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ২৪ হাজার ৯৬ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৬৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৬ হাজার ৩৯১ জন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *