বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর সাথে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎ

জাতীয়

এসএম দেলোয়ার হোসেন:
বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী প্রধানগণের সাথে পৃথকভাবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছে ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর একটি প্রতিনিধি দল। আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
আইএসপিআর জানায়, আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর এ প্রতিনিধি দলটি সেনা-নৌ ও বিমানবাহিনীর দপ্তরে সংস্থার প্রধানদের সাথে পৃথকভাবে এ সাক্ষাৎ করেছে।

সেনাবাহিনী ঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর একটি প্রতিনিধি দল আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) ঢাকা সেনানিবাসস্থ সেনাবাহিনী সদর দপ্তরে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সেনাপ্রধান বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে এ বীর সেনানীদের অবদান গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন এবং তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। প্রতিনিধি দলের সদস্যগণ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তথা বাংলাদেশের সার্বিক অগ্রযাত্রা ও উন্নয়নের প্রশংসা করেন এবং উত্তরোত্তর উন্নতি কামনা করেন। পরে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ এই বীর সেনানীদের শুভেচ্ছা উপহার প্রদান করেন। এর আগে আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) সকালে তারা ঢাকা সেনানিবাসস্থ শিখা অনির্বাণে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে স্বাধীনতা যুদ্ধে শাহাদাত বরণকারী সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সেনাপ্রধানের সাথে সাক্ষাৎ শেষে প্রতিনিধি দলটি সশস্ত্র বাহিনী বিভাগে প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় করেন। মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) নারায়ণ শংকর নায়ার এর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ৩০ জন এবং ৬ জন চাকুরীরত ভারতীয় সামরিক বাহিনীর সদস্য চলতি মাসের ২৫ মার্চ ভারতীয় এই দলটি রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকায় আগমন করে। সফরকারী দলটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে গত ২৬ মার্চ জাতীয় স্মৃতিসৌধে মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এছাড়া, তারা মুক্তিযুদ্ধে টাঙ্গাইলের কালিহাতী এলাকায় ছত্রীসেনা অবতরণস্থলসহ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরির্দশন করেন।

নৌবাহিনী ঃ নৌবাহিনী প্রধানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছে বাংলাদেশে সফররত ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর একটি প্রতিনিধি দল। আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী মেজর জেনারেল (অব.) নারায়ণ শংকর নায়ার এর নেতৃত্বে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর ৩০ জন বীর যোদ্ধাদের একটি প্রতিনিধি দল বনানীস্থ নৌসদর দপ্তরের সাগরিকা হলে নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল এম শাহীন ইকবাল এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় নৌসদরের অন্যান্য পিএসও’গণ ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিতে প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশে এসেছে। সফরের অংশ হিসেবে আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) দুপুরে তারা নৌবাহিনী প্রধানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। এ সময় বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে ভারতের বলিষ্ঠ ভূমিকার কথা কৃতজ্ঞতার সাথে স¥রণ করা হয়। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলার আপামর জনগণ যে মুক্তির সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল সেই মহান স্বাধীনতা অর্জনে ভারত বিশ্বস্ততম বন্ধু হিসেবে আমাদের সর্বক্ষেত্রে সহযোগিতা করেছে। বিশেষ করে ১৯৭১ সালে পরিচালিত ‘অপারেশন জ্যাকপট’কে সাফল্যমন্ডিত করতে ভারতের অবিস¥রণীয় ভূমিকার কথা উল্লেখ করা হয়। এছাড়া নৌ কমান্ডোদের গেরিলা প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন অস্ত্র ও যুদ্ধ সরঞ্জামাদির মাধ্যমে প্রশিক্ষিত ও অপ্রতিরোধ্য হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ভারত প্রত্যক্ষ ভূমিকা পালন করে। এ সময় চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হওয়ার পূর্বেই ভারত কর্তৃক বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি প্রদানের বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়। তাছাড়া ভারতের সাথে বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্ককে আরও জোরদার করতে বাংলাদেশ নৌবাহিনী সবসময় কাজ করে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

বিমানবাহিনী ঃ সহকারী বিমানবাহিনী প্রধানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছে বাংলাদেশে সফররত ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর একটি প্রতিনিধি দল। আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) বিমানবাহিনীর ফ্যালকন হলে সহকারী বিমানবাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল মো. আবুল বাশার, বিবিপি, ওএসপি, এনডিসি, এসিএসসি, পিএসসি এর সাথে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর ৩০ জন বীর যোদ্ধাসহ ৩৮ জনের একটি প্রতিনিধি দল এ সাক্ষাতে মিলিত হয়। ভারতীয় প্রতিনিধি দলটির নেতৃত্বে ছিলেন মেজর জেনারেল শ্রীঞ্জয় প্রতাপ সিং, ওয়াই এস এম। সাক্ষাতকালে তারা পারস্পারিক কুশল বিনিময় করেন এবং কিছু সময় অতিবাহিত করেন। সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর অবদানের কথা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেন। এ সময় বিমান সদরের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারগণসহ অন্যান্য ঊর্র্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণে পাঁচদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে গত ২৫ মার্চ বাংলাদেশে আসেন ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধি দলটি। এখনও তারা বাংলাদেশ সফর করছেন। সফরকালে তারা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগদান করেছেন। ভারতীয় প্রতিনিধি দলটির এই সফর দুই দেশের মধ্যে বিরাজমান সহযোগিতামূলক এবং ভাতৃপ্রতিম সম্পর্ককে আরো সুসংহত করবে বলে আশা করা যায়। পাঁচদিনের রাষ্ট্রীয় সফর শেষে আগামীকাল সোমবার (২৯ মার্চ, ২০২১) ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর উক্ত প্রতিনিধি দলটি তাদের নিজ দেশে ফিরে যাবার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে সেনাবাহিনীর বর্ণাঢ্য র‌্যালি ঃ স্বল্পোন্নত দেশ হতে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এ উপলক্ষে আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) ঢাকা সেনানিবাসে লগ এরিয়ার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার সাথে জাঁকজমকপূর্ণভাবে বর্ণাঢ্য একটি র‌্যালির আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল (কিউএমজি) লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ র‌্যালিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। র‌্যালিটি ঢাকা সেনানিবাসের সিগন্যাল গেইট ও লজিস্টিকস্ এরিয়া এমপি ইউনিটের সম্মুখ হতে দুইটি দলে বিভক্ত হয়ে শুরু হয় এবং সেনানিবাসের প্রধান সড়ক হয়ে সেনাকুঞ্জে সমাপ্ত হয়। উক্ত র‌্যালিতে ঢাকা সেনানিবাসে কর্মরত সামরিক-অসামরিক কর্মকর্তা, জেসিও এবং অন্যান্য পদবীর সৈনিকবৃন্দ স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে।

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী ও উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে বিমানবাহিনীর বর্ণাঢ্য র‌্যালি ঃ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে উচ্ছ্বসিত ও আনন্দিত বাংলার আকাশ ও বাতাস। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা হতে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ায় এই উচ্ছ্বাসে যোগ হয়েছে এক নতুন মাত্রা। ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ঃ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’ উদযাপন উপলক্ষে আজ রোববার (২৮ মার্চ, ২০২১) সকালে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সকল ঘাঁটি ও বিমান সদর দপ্তরে একযোগে স্বতঃস্ফুর্তভাবে র‌্যালির আয়োজন করা হয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিব জন্মশতবর্ষে দেশের এ অর্জন এক বিরাট গৌরবের ও আনন্দের।
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের এ অর্জন নতুন প্রজন্মকে উৎসর্গ করেছেন। সরকার কর্তৃক সমগ্র দেশবাসীকে সম্পৃক্ত করে ‘স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’ উদযাপনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। উক্ত কর্মসূচিতে সম্পৃক্ত হওয়ার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত, বিবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি এর দিক নির্দেশনায় বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সকল ঘাঁটি ও বিমান সদর দপ্তর ইউনিটে কোভিড-১৯ এর সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই আনন্দ র‌্যালির আয়োজন করা হয়। এদিন মুজিব বর্ষের লোগো সম্বলিত ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ঃ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’ লেখা বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন এবং ছবি নিয়ে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সদস্যরা বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আনন্দ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। এ সময় বিমানবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিমানসেনাগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *