বাসাইলে তিন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বাড়িঘর নদীর পেটে

সারাবাংলা

ইমরুল হাসান বাবু, টাঙ্গাইল থেকে : টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার দাপনাজোড় গ্রামে ঝিনাই নদীর ভাঙনে তিন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বাড়িঘর বিলীন হয়ে গেছে। নদী ভাঙনে বাড়িঘর সহ সর্বস্ব হারিয়ে ওই তিন পরিবারের ২৮ সদস্য খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন-যাপন করছে।
জানা যায়, নদীর পানি কমতে থাকায় কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোড় অংশে সম্প্রতি ঝিনাই নদীর বামতীরে তীব্র ভাঙন শুরু হয়। ভাঙনে দাপনাজোড় পূর্বপাড়ার মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহের আলী খান (৮৫), খন্দকার বদিউর রহমান (৮০) ও মরহুম খন্দকার ছানোয়ার হোসেনের বসতবাড়ির ৬টি টিনসেড ঘর ইতোমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ভাঙন অব্যাহত থাকলে আরও ৫টি বসতঘর নদীতে বিলীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহের আলী খান জানান, পানি কমতে থাকায় সম্প্রতি দাপনাজোর অংশে ঝিনাই নদীর ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনের দ্রুততার কারণে তারা বসতঘর ও ঘরের আসবাবপত্রও সরিয়ে নিতে পারেননি। কয়েক মুহূর্তে তার বসতঘর সহ বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। তিনি পরিবারের নাতি-নাতনি সহ ১৬ জন সদস্য নিয়ে ভেঙে যাওয়া ঘরের অর্ধাংশে ঝুঁকি নিয়ে গাদাগাদি করে বসবাস করছেন। স্থানীয় জুলফিকার আলী, খন্দকার আবুল হোসেন, রফিক খান, খন্দকার ইরান সহ অনেকেই নদী ভাঙনের আশঙ্কায় বাড়ির ঘর অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য মহসিন মিয়া জানান, ঝিনাই নদীর তীব্র স্রোতে দাপনাজোড় পূর্বপাড়ার তিন মুক্তিযোদ্ধা সহ ১০-১২টি বাড়ি ভেঙে গেছে। বিষয়টি তিনি ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছেন। বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুন্নাহার স্বপ্না জানান, তিনি সরেজমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *