বাসাইলে বাড়ির উঠানে পাঠদান

সারাবাংলা

মিলন ইসলাম, বাসাইল থেকে
টাঙ্গাইলের বাসাইল সদর ইউনিয়নের রাশড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাঠে ও শ্রেনি কক্ষে জল উঠায় বাড়ির উঠানে পাঠদান করছে শিক্ষার্থীরা। করোনাভাইরাসের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। প্রায় দেড় বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয় সরকার। গত রোববার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাসাইল সদর ইউনিয়নের রাশড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ের জমিদাতা হাজী নজির হোসেনের বাড়ির উঠানে ও ঘরের ভিতর পাঠদান করছে। উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্র জানা যায়, উপজেলায় ৭৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। তার মধ্যে ৪৯ টি বিদ্যালয়ের মাঠে জল রয়েছে। উপজেলায় ২৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১১টি মাদ্রাসা এবং ৩টি কলেজ রয়েছে। তার মধ্যে ১৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বন্যার জল রয়েছে। রাশড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হোসনে আরা আক্তার পপি বলেন, বিদ্যালয়ে জল থাকার কারণে শিক্ষার্থীদের পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। করোনাভাইরাসের কারণে দেড় বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর দেড় বছর পর বিদ্যালয় খুলেছে। কোমলমতি শিশুদের আজকে আনন্দের দিন ছিল। কিন্তু সেই আনন্দদায়ক দিনটিকে উপভোগ করার সুযোগ করে দিতে পারিনি। বিদ্যালয়ে জল থাকার কারণে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে পাঠদান শুরু করতে পারিনি। বাড়ির উঠানে ও ঘরের ভিতরে পাঠদান করতে হয়েছে।এখনো বিদ্যালয়ের শ্রেনি কক্ষে ২-৩ ফিটের মতো জল রয়েছে। বাসাইল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সদানন্দ পাল জানান, উপজেলায় ৭৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। ৪৯টিতে বন্যার জল রয়েছে। পাঁচটি বিদ্যালয়ের মধ্যে ২টি বিদ্যালয়ের জল নেমে গেছে,৩টি বিদ্যালয়ের শ্রেনি কক্ষে জল থাকায় ২টি বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় তলায়, ১টি বিদ্যালয়ের বাড়ির উঠানে ও ঘরের ভেতর পাঠদান হয়েছে। উপজেলার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের পাঠদান সম্পন্ন হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *