বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়লেন সাইফউদ্দিন, দলে রুবেল

খেলাধুলা

খেলাধুলা ডেস্ক : পিঠের চোটের কারণে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাকি অংশে থাকছে না পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার জায়গায় দলে এসেছেন পেসার রুবেল হোসেন।
দুবাই স্পোর্টস সিটির আইসিসি একাডেমি মাঠে মঙ্গলবার দলের অনুশীলনে ছিলেন না সাইফ। পরে তার ছিটকে পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে আইসিসি।
গত রোববার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫ উইকেটে হেরে যাওয়া ম্যাচে তিন ওভার বল করে ৩৮ রান খরচায় এক উইকেট নিয়েছিলেন সাইফ। এতদিন মূল দলের সঙ্গে রিজার্ভ খেলোয়াড় হিসেবে ছিলেন রুবেল। বাংলাদেশের হয়ে এখন পর্যন্ত ২৮ টি-টোয়েন্টির সবশেষটি খেলেছেন তিনি গত এপ্রিলে, নিউ জিল্যান্ড সফরে। এই সংস্করণে দেশের হয়ে তার উইকেট ২০টি।
সাইফের ছিটকে যাওয়া বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কাই। আসরে এখন পর্যন্ত দলের চার ম্যাচেই খেলেছেন তিনি। উইকেট নিয়েছেন ৫টি।
সেমিফাইনালের লড়াইয়ে থাকতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় চাই বাংলাদেশের। কঠিন প্রতিপক্ষের সাথে নির্ভুল একটা ম্যাচের আশা বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের। অনুশীলনে চোট পাওয়ায় সোহানকে নিয়ে আছে শঙ্কা। অন্যদিকে বড় জয়ে মিশন শুরু করা ইংল্যান্ড, টাইগারদের নিয়ে সতর্ক। আবুধাবিতে আজ ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায়।
অনুশীলন দেখে বোঝার উপায় নেই কতটা চাপে আছে বাংলাদেশ দল। ফুরফুরে, হাসিমুখে কষ্ট ভোলার চেষ্টা রিয়াদ-সাকিবদের। এছাড়া যে উপায় নেই লড়াই করতে হবে ফিরতে টিকে থাকতে হবে বিশ্বকাপের মঞ্চে। সেখানে বড় চ্যালেঞ্জ ইংল্যান্ড। যাদের বিপক্ষে এরআগে কখনই টি-টোয়েন্টি খেলেনি বাংলাদেশ।
ঘুড়ে দাঁড়াতে সেরা ফর্মে ফিরতে কন্ডিশন-উইকেট সম্পর্কে থাকতে হবে বিস্তর জ্ঞান। সেই সুযোগ পাচ্ছে না বাংলাদেশ। ম্যাচের আগের দিনে ম্যাচভেন্যুতে অনুশীলন করা হয়নি। ক্রিকেটাররা যেখানে থাকছেন, সেখান থেকে আবুধাবী প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে। টানা ম্যাচ, আর ধকলের মাঝে আর ভ্রমণ করতে চায়নি ম্যানেজেন্ট।
টি-টোয়েন্টিতে ম্যাচের বড় প্রভাবক হয়ে দাঁড়ায় ফিল্ডিং, শ্রীলঙ্কা ম্যাচের ভুল শুধরাতে আইসিসি একাডেমি মাঠে ফিল্ডিংয়েই বেশি মনোযোগ কোচিং স্টাফের। নিজেদের শানিয়ে নেয়ার সাথে ভাবনায় রাখতে হচ্ছে ইংল্যান্ডের শক্তি সামর্থ্যে। গেলবারের রানার্স আপ দলটির বড় শক্তি বোলিং লাইন আপ। লেগ স্পিনার আদিল রশিদ তো হয়ে উঠতে পারে ত্রাশ।
বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ ওটিস গিবসন বলেন, মাঠে ভুল হবেই তবে যারা কম করবে তারাই জিতবে। আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে। ব্যাটসম্যানদের সাথে বোলারদের জ্বলে উঠতে হবে। মুস্তাফিজের উপর বিশ্বাস হারায় না আমি। পরিকল্পনা মতো খেলতে পারলে জয় পাবো আমরা।
বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাস যেখানে তলানিতে সেখানে ফুরফুরে মেজাজে ইংল্যান্ড। আসরের শুরুটা হয়েছে স্বপ্নের মতো। উইন্ডিজকে ৫৫ রানে অল-আউট করে জয় পেয়েছে ছয় উইকেটে। খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে গেলেও বাংলাদেশকে হালকা ভাবে নিচ্ছে না ইংল্যান্ড।
ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান জস বাটলার, টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলিনি। নিজেদের দিনে ওরা বিপজ্জনক দল। তবে ওডিআই খেলার অভিজ্ঞতা কাজে দেবে। ওদের কিছু ভালো ক্রিকেটার আছে, প্রতিপক্ষের সাথে নিজেদের পরিকল্পনা নিয়েও আমরা ভাবছি।
একাদেশে একটা পরিবর্তন আসবে, অনেকটায় নিশ্চিত। একজন স্পিনার কমিয়ে, নেয়া হতে পারে পেইসার। সেখানে নাসুমের জায়গায় ফিরতে পারেন তাসকিন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্পিডস্টারের অতিত পারফর্মেন্স এগিয়ে রাখছে দলে ফেরার রেইসে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *