বিশ্বে একদিনে আরও সাড়ে ৪ হাজার মানুষের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় চার হাজার ৫৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন তিন লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই লাখ ৫৮ হাজার ১৯০ জন।

এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ছয় হাজার ৯৩ জনের মৃত্যু হয়। একই সময়ে নতুন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয় তিন লাখ ৮৭ হাজার ১১১ জন।

সোমবার (১ নভেম্বর) আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০ লাখ ১৪ হাজার ৯৪০ জনে। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো ২৪ কোটি ৭৬ লাখ ৬০ হাজার ৪৬৭ জনে। এছাড়া করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২২ কোটি ৪১ লাখ ২৫ হাজার ৪১৭ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ও আক্রান্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ৬৮ লাখ ২৩ হাজার ৯৩৮ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন সাত লাখ ৬৬ হাজার ২৯৯ জন। এছাড়া সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিন কোটি ৬৭ লাখ ১৫ হাজার ৩১৩ জন।

তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন তিন কোটি ৪২ লাখ ৮৫ হাজার ৬১২ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন চার লাখ ৫৮ হাজার ৪৭০ জন।

তৃতীয় অবস্থানে থাকা ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই কোটি ১৮ লাখ ১০ হাজার ৮৫৫ জনে। এর মধ্যে মারা গেছেন ছয় লাখ সাত হাজার ৮৬০ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই কোটি নয় লাখ ৯৬ হাজার ৭৭২ জন।

তালিকায় এরপরের স্থানগুলোতে রয়েছে যথাক্রমে যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, তুরস্ক, ফ্রান্স, ইরান, আর্জেন্টিনা, স্পেন, কলম্বিয়া ও ইতালি।

তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৩০ নম্বরে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৬৯ হাজার ৫৩৯ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ২৭ হাজার ৮৬৮ জন। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর সেরে উঠেছেন ১৫ লাখ ৩৩ হাজার ৪২৩ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান প্রদেশের হুবেই শহরে প্রথম করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়। কয়েক মাসের মধ্যেই ভাইরাসটি বিশ্বের অধিকাংশ দেশে ছড়িয়ে পড়ে। গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *