বেড়িবাঁধ ভেঙে জল ঢুকছে লোকালয়ে দশমিনা : ভেসে গেছে শত শত পুকুরের মাছ

সারাবাংলা

তাওহিদা শেফা, দশমিনা থেকে
অমাবশ্যার প্রভার ও সুতাবাড়ীয়া নদীর পানির চাপে দশমিনা উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কামরাঙ্গীর বেড়িবাধ ভেঙে ১০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিতে ডুবে গেছে শিক্ষা ও ধমীয় প্রতিষ্ঠান সহ শত শত বাসাবাড়ি। পানিতে ডুবে আছে সহস্রাধিক একর জমির আমন বীজতলা। পানির তোরে ভেসে গেছে শতাধিক পুকুরের মাছ। স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার ভোরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় নির্মিত কামরাঙ্গীর বেড়িবাধের পূর্ব আলীপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্নে বেড়ি বাধের ১০ ফুট ভেঙে হুহু করে সুতাবাড়ীয়া নদীর পানি ঢুকছে লোকালয়ে। সুতাবাড়ীয়া নদীর পানি ঢুকেপূর্ব আলীপুর, আলীলক্ষী, মিরমর্দন, নয়াভাঙ্গলী, তেরঘর, কলাতলা, নিজাবাদ, গোপালদী সহ ১০টি গ্্রাম ৩/৪ ফুট পানিতে প্লাবিত হয়েছে। পানিতে সহস্রাধিক একর জমির আমন বীজতলা ডুবে গেছে ও শতাধিক পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। পানিতে ডুবে আছে শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সহ শত শত বাসাবাড়ি। স্থানীয় বাসিন্দা ওয়াজেদ আলী গাজী বলেন, সম্প্রতি ঘূর্নিঝড় ইয়াসের তান্ডবে কামরাঙ্গীর বেড়ি বাধের ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হলে গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে ৯ হাজার টাকা খরচ করে মাটি ফেলে ওই বাধের কিছুটা সংস্কার করা হয়েছিল,কিন্তু অমাবশ্যার প্রভাবে সুতাবাড়ীয়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পানির চাপে বাধের ১০ ফুট এলাকা ভেঙে হুহু করে লোকালয়ে পানি ঢুকছে। স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল খালেক বেপারী (৭৫) বলেন, বাধ ভেঙে যাওয়ায় আমাদের সবকিছু শেষ হয়ে গেলো। পূর্ব আলীপুর ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মোঃ বেল্লাল হোসেন বলেন, কামরাঙ্গীর বেড়িবাধ দিয়ে মাদ্রাসায় প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থী যাতায়াত করে, বাধ ভেঙে যাওয়ায় দূভোর্গে পড়তে হবে তাদের। স্থানীয় ইউপি সদস্য রবিউল হোসেন বলেন, বিষয়টি চেয়ারম্যানকে অবহিত করেছি। আলীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আতিকুর রহমান সাগর বলেন,বাধ ভেঙে যাওয়ার বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্র্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। উপজেলা নির্বার্হী অফিসার মোঃ আল আমিন বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করে ভেঙে যাওয়া বাধ দ্রুত মেরামতের উদ্দ্যেগ নেওয়া হবে। এব্যপারে পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ সালেহ আহমেদের সঙ্গে বহুবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *