মন্ত্রীর বৈঠকে ফল নেই, পরিবহন ধর্মঘট চলবে

জাতীয়

ডেস্ক রিপোর্ট : জ্বালানি তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবিতে বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ট্রান্সপোর্ট অ্যাজেন্সি মালিক সমিতির নেতারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। বৈঠক শেষ করে বেরিয়ে ট্রান্সপোর্ট অ্যাজেন্সি মালিক সমিতির মহাসচিব আব্দুল মোতালেব সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠক থেকে তেমন কোনো ফলাফল আসেনি, বিধায় চলমান পণ্য পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

আজ (শনিবার) দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসায় সাক্ষাৎ শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে এই ঘোষণা দেন ট্রান্সপোর্ট অ্যাজেন্সির নেতারা।

এ সময় আব্দুল মোতালেব বলেন, হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের মূল্য লিটার প্রতি ১৫ টাকা বাড়ানো হয়েছে। দুই সেতুর টোল বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে পরিবহন খাত থেকে মালিকদের যে সামান্য লাভ হতো তা এখন আর থাকবে না। বাসের ক্ষেত্রে কিলোমিটারে ভাড়া বাড়িয়ে থাকে বিআরটিএ। কিন্তু পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে কাস্টমার তা বোঝেন না। তারা কখনো বাড়তি ভাড়া দেবেন না। সারাদেশে একটা ভাড়া আছে সেই ভাড়াই কাস্টমাররা দেবেন। কিন্তু আমাদের তো পোষাবে না। তাই আমরা তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে গিয়েছি।

তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের কথা শুনেছেন। তিনি বলেছেন, আপনাদের দাবি যৌক্তিক। এর যথোপযুক্ত কারণও আছে। বিষয়টি আমার মন্ত্রণালয়ের নয় যে, আপনাদের সঙ্গে কথা বলে সমাধান করবো। যেহেতু জ্বালানি মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর আওতাধীন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী এই মুহূর্তে দেশের বাইরে আছেন। আপনাদের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করে এ বিষয়ে আপনাদের জানানো হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে আব্দুল মোতালেব বলেন, আমরা ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে কারও কাছে যাইনি। আমাদের দাবি একটাই, আমরা তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার চাই। তেলের দাম বাড়ায় পুরো প্রভাব জনগণের ওপর পড়ছে। হাজারো সমস্যা তৈরি হবে। প্রয়োজনে সরকার তেলের ওপর থেকে ভ্যাট-ট্যাক্স তুলে নিক। তাহলে এই বর্ধিত দাম প্রত্যাহার সম্ভব।

তিনি আরও বলেন, করোনার দুই বছরে লাখ লাখ মানুষ বেকার হয়ে পড়েছে। অনেকে চাকরি হারিয়েছে। জীবন নিয়ে অনেকে সন্ধিহান হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো মোটেই সঠিক কাজ হয়নি। সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে তেলের বাড়তি দাম প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। বাড়তি দাম প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের পণ্য পরিবহন ধর্মঘট চলবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *