বোরকাপড়া নারী প্রতিমাকে ভক্তি দেওয়ায় আতংক

সারাবাংলা

আজিজুল ইসলাম, লালমনিরহাট থেকে : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় রাধা গোবিন্দ মন্দিরে পুজা চলাকালীন সময়ে মন্ডপের ভিতরে প্রবেশ করে আলেয়া বেগম (৪০) নামের এক বোরকাপড়া মুসলিম নারী প্রতিমাকে ভক্তি দেওয়ায় ভক্তদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। পরে আনসার সদস্যরা তাকে আটক করে। গত শনিবার রাতে উপজেলার নওদাবাস ইউনিয়নের নওদাবাস রাধা গোবিন্দ মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে। আলেয়া বেগম উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম বেজগ্রাম এলাকার হারুন এর স্ত্রী।
রাধা গোবিন্দ মন্দিরে পূজা দিতে আসা ভক্তবৃন্দরা জানায়, উপজেলার নওদাবাস রাধা গোবিন্দ মন্দিরে শনিবার রাত ৮টায় হঠাৎ একজন বোরকাপড়া মুসলিম মহিলা মন্ডপে প্রবেশ করে প্রতিমাকে ভক্তি দেওয়া শুরু করে। এ সময় উপস্থিত ভক্তৃন্দের মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয় এই মহিলা তাদের প্রতিমা ভাঙ্গতে পারে। তাই তারা পুজা কমিটিকে অবগত করে। পূজা কমিটি ওই ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্যাট্রোল টিম (১৯) এর পিসি কে মোবাইলে জানালে তৎক্ষনিক টহল টিম সেখানে উপস্থিত হয়ে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা (ইউএভিডিও) কে জানায়। পরে আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা (ইউএভিডিও) ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে টিম -১৯ এর পিসি সহ মন্ডপে অবস্থানরত সেচ্ছাসেবি মহিলার সাহায্যে উক্ত মহিলাটিকে হাতীবান্ধা থানায় হস্তান্তর করেন।
আলেয়া বেগম বলেন, আমার মানত ছিল তাই আমি সেখানে মোমবাতি জ্বালিয়ে হিন্দুদের প্রতিমাকে ভক্তি দেওয়ার জন্য ওই মন্দিরে গিয়েছিলাম। পুজা মন্ডপের সভাপতি প্রদিপ কুমার বর্মন বলেন, বোরকাপড়া মহিলাটি মন্ডপে প্রবেশ করে তখন আমাদের মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয়েছিল এবং সংসয় হয়েছিল যে মহিলাটি আমাদের প্রতিমা ভাঙ্গতে পারে।
হাতীবান্ধা উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা (ইউএভিডিও) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে টিম -১৯ এর পিসি সহ মন্ডপে অবস্থানরত সেচ্ছাসেবি মহিলার সাহায্যে উক্ত বোরকাপড়া মহিলাটিকে হাতীবান্ধা থানায় হস্তান্তর করেছি।
হাতীবান্ধা থানার ওসি এরশাদুল আলম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অত্র ইউনিয়নের ইউপি সদস্য বজলুর রহমানের জিম্বায় উক্ত মহিলা কে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *