ব্যবসায়ীক লেনদেন নিয়ে শত্রুতার জেরে খুন

সারাবাংলা

এমএ আজিজ, ময়মনসিংহ অফিস:
ময়মনসিংহের নান্দাইলে ব্যবাসায়ী জাহিদ তালুকদার হত্যাকাণ্ডের দুইদিনের মধ্যে ৪ ঘাতককে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গত শনিবার ডিবি পুলিশ ঢাকা মেট্টোপলিটন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা গতকাল রোববার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেÑ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের (বর্তমান ডিএমপির দক্ষিণখানের ফায়দাবাদ চৌরিরটেক (ওসমান মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া) নাঈম ইসলাম (১৯), দক্ষিণখানের কোর্টবাড়ী (মসজিদের পাশে) হুসেন আলী (২১), ময়মনসিংহ সদরের নারায়ণপুরের ( বর্তমান দক্ষিণখানের কোর্ট বাড়ী রেল গেইট সংলগ্ন, মসজিদের সাথে, (ইন্তাজ উদ্দিন এর বাড়ীর ভাড়াটিয়া) রাসেল মিয়া (১৯) এবং কোর্ট বাড়ী ৮নং রেল গেইট সংলগ্ন (জনৈক লুচি এর বসত বাড়ীর ভাড়াটিয়া ) সুমন মিয়া (১৯)। ব্যবসায়িক টাকা পয়সা লেনদেনকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিতভাবে খুনিচক্র ঢাকা থেকে এসে তাকে হত্যা করে আবারো ঢাকায় চলে যায় বলে পুলিশ জানায়। ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, নান্দাইলের গাংগাইল ইউনিয়নের অরণ্যপাশা গ্রামের হাবিবুর রহমানের বাড়ি ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করছিল হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার গাংপুর গ্রামের মাহতাব তালুকদারের পুত্র ব্যবসায়ী (ফেরিওয়ালা) জাহিদ তালুকদার। শুক্রবার অন্য ফেরিওয়ালারা ফেরি করে বাসায় ফিরে দেখতে পান মহাজন জাহিদের বাসার গ্রিলে তালা দেওয়া এবং তার কোনো সাড়া শব্দ নেই। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে হাত-পা বাধা অবস্থায় জাহিদের মৃতদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আসাদ মিয়া তালুকদার অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে নান্দাইল থানায় হত্যা মামলা নং ৩০(৬)২১) দায়ের করেন। ওসি শাহ কামাল আকন্দ আরো বলেন, ব্যবসায়ী হত্যাকান্ডের ঘটনাকে প্রাধান্য দিয়ে দায়িত্বশীল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান থানা পুলিশের পাশাপাশি ডিবি পুলিশকে হত্যার রহস্য উদঘাটন ও হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে তাৎক্ষণিক নির্দেশ দেন। পুলিশ সুপারের নির্দেশে গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শাহ কামাল আকন্দের নেতৃত্বে একটি চৌকস দল দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। হত্যার ধরন বিবেচনায় নিয়ে তদন্তকালে ৪ খুনিকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয় ডিবি পুলিশ। খুনীচক্রকে গ্রেফতার করতে ডিবি পুলিশ শনিবার ঢাকার মেট্টোপলিটন (ডিএমপি) এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতদারকৃতদের কাছ থেকে নিহত ব্যবসায়ী জাহিদের দুটি মোবাইল সেট জব্দ করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের বরাত দিয়ে ওসি শাহ কামাল জানান, আসামি নাঈমের সাথে নিহত জাহিদের ব্যবসায়ীক টাকা পয়সা লেনদেনকে কেন্দ্র করে শক্রতা চলছিল। এই শক্রতায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে খুনিরা ঢাকা থেকে এসে তাকে হত্যা করে আবারো ঢাকায় চলে যায়। রবিবার তাদের ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুর রহমানের আদালতে পাঠানো হলে গ্রেফতারকৃত চার জনই হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে হত্যারকাণ্ডের বর্ণনা দেয় বলে ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *