ভারত জুড়ে কৃষক বিক্ষোভ, ৪০ জায়গায় ট্রেন চলাচল বন্ধ

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্র’র অপসারণ ও গ্রেফতারের দাবিতে দেশ জুড়ে রেললাইন অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন কৃষকরা। এতে ৩০টির বেশি জায়গায় বন্ধ থাকে ট্রেন চলাচল। গন্তব্যে যেতে না পেরে চরম দুর্ভোগ পড়েন যাত্রীরা।

আন্দোলনকারী কৃষকদের ‘রেল রোকো’ কর্মসূচির জেরে উত্তর ভারতের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ট্রেন চলাচল বিঘ্নিত হয়েছে আজ সারাদিন (১৮ অক্টোবর)। রেল মন্ত্রণালয় সূত্রের খবর, রেল লাইন অবরোধের জেরে বিভিন্ন রাজ্যে ৫০টিরও বেশি ট্রেন আটকে পড়েছে। বাতিল করা হয়েছে, একাধিক ট্রেন।

‘কৃষক সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি’র তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল, সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে রেল অবরোধ। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। কিন্তু পঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান এবং পশ্চিম-উত্তরপ্রদেশের কিছু এলাকায় তার আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় অবরোধ। প্রায় ৪০টি স্থানে রেল লাইন অবরোধ করেন কৃষকেরা। উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষক হত্যার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের গ্রেফতারির দাবি তোলেন তাঁরা। পাশাপাশি, কৃষি আইন বাতিলেরও দাবি তোলেন।

কৃষক আন্দোলনকারীদের অবরোধের জেরে পঞ্জাবের ফিরোজপুর-লুধিয়ানা, ফিরোজপুর-ফাজিলিকা শাখায় রেল চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। উত্তর রেল জানাচ্ছে, ভিওয়ানি-রেওয়ারি, সিরসা-রেওয়ারি, লোহারু-হিসার, সিরসা-ভাতিন্ডার মতো বেশ কিছু শাখায় অবরোধের কারণে ট্রেন চলেনি। চ-ীগড়-ফিরোজপুর এক্সপ্রেস অবরোধে আটকে পড়েছে।

কৃষকদের রেল অবরোধ আন্দোলন ব্যর্থ করতে উত্তরপ্রদেশে ১৪৪ ধারা জারি করেছিল মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সরকার। নির্দেশ আমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ‘জাতীয় নিরাপত্তা আইনে’ মামলা রুজু করার হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়। কিন্তু সেই হুঁশিয়ারি অমান্য করে সোমবার সকালে বিভিন্ন এলাকায় রেললাইনে বসে পড়েন আন্দোলনকারীরা। বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত সোমবার বলেন, ‘‘কেন্দ্র এখনও আমাদের সঙ্গে কোনও আলোচনাই করেনি। আমরা চাই দেশবাসী জানুক, কেন কৃষকরা আজ আন্দোলনে নেমেছে।’’ সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *