সেলুনের মালিক সালাউদ্দিন লাভলু খুলতে চায় পারলার

বিনোদন

ডেস্ক রিপোর্ট: ভোলা সুপার সেলুন লিমিটেডের মালিক ভুলু তালুকদার। সবাই তাকে চেনে ‘ভোলা নাপিত’ নামে। আশপাশের দশ গ্রামে তার পসার। যদিও ‘নাপিত’ বললে ভীষণ ক্ষেপে যান তিনি। সবার চুল-দাঁড়ি ছেঁটে সুন্দর করে দেন তিনি। তাই তার চাওয়া, সবাই তাকে ডাকবে ‘নরসুন্দর ভোলা’।

ভালোই চলছিল ভোলা নাপিতের ব্যবসা। এমন সময় দেশে আসেন ১৩ বছর বিদেশে থাকা তার বন্ধু। তিনি ভোলা নাপিতকে একটা পারলার খোলার বুদ্ধি দেন। স্ত্রী কুসুমের সঙ্গে এ বিষয়ে পরামর্শ করেন ভোলা। কুসুম রাজিও হয়। কিন্তু একদিন ইউটিউবে পারলারের কয়েকটি ভিডিও দেখে সে মনে মনে ভাবে, এসব করার জন্যই কি বিউটি পারলার চালু করতে চায় ভোলা?

এরপর কুসুম রাগ করে বাপের বাড়ি চলে যায়। শুরু হয় জটিলতা। এমনই গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ঈদের নাটক ‘কুসুম বিউটি পারলার’। খাইরুল বাবুইয়ের গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন মেহেদী বিন আশরাফ। এখানে ভোলা নাপিতের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতা ও অভিনেতা সালাউদ্দিন লাভলু। তার স্ত্রী কুসুমের চরিত্রে আছেন মৌসুমী মৌ। বন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন কচি খন্দকার।

সালাউদ্দিন লাভলুর সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে অভিনেত্রী মৌ বলেন, ‘উনি শুধু অভিনেতা নন, দারুণ একজন পরিচালক। শুটিং সেটে তিনি আমাকে নিখুঁতভাবে সবকিছু বুঝিয়ে দিয়েছেন। উনার শট শেষ হয়ে যাওয়ার পর দাড়িয়ে থেকে আমারটা দেখেছেন, পরামর্শ দিয়েছেন। ভুল হলে ঠিক করে দিয়েছেন। এক কথায়, সহশিল্পী হিসেবে সালাউদ্দিন লাভলু দুর্দান্ত। হাতে ধরে আমার থেকে অভিনয় বের করে এনেছেন।’

নির্মাতা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ‘কুসুম বিউটি পারলার’ নাটকটির শুটিং হয়েছে ঢাকার অদূরে পূবাইলে। ঈদে বেসরকারি চ্যানেল দীপ্তি টিভিতে নাটকটি প্রচারিত হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *