ভোটারের পা ধোয়া প্রতিশ্রুতি রাখলেন কবিরহাট পৌরসভার সাবেক মেয়র

সারাবাংলা

সালাহ উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী থেকে : দেশে অনেক ধরনের আয়োজন দেখলেও বেতিক্রমি এক আয়োজন দেখা যায় নোয়াখালীতে, ২০১৮ সালের উপজেলা নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ভোটের সময় প্রত্যেক ইউনিয়ন থেকে একজন ভোটারের পা দোয়াবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন আলাবক্স তাহের টিটু। গতকাল শুক্রবার দুপুরে নোয়াখালী কবিরহাট পৌরসভার সাবেক মেয়র আলাবক্স তাহের টিটু তার নিজ বাসভবনে এই আয়োজন করেন। গত উপজেলা নির্বাচনের সময় টিটু জনগণকে ওয়াদা করেছিলেন তিনি নির্বাচিত হোক বা না হোক উপজেলার ৭ ইউনয়ন ও এক পৌরসভার ৮ জন ভোটারকে পা ধুয়ে সম্মান দেখাবেন। তারই ধারাবাহিকতায় এই পা ধোয়ার আয়োজন করা হয়।

সর্বপ্রথমে নিজ মায়ের পা ধোয়ার মাধ্যমে উনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। সাধারণ জনগণ তার এই কর্মকান্ডে অনেক খুশি হয়ে তাকে উৎসাহিত করেন। পাশাপাশি একই সাথে তার বাড়িতে ১৫০ জন বাচ্চার বিনা পয়সায় সুন্নাতে খৎনা আয়োজন করেন তিনি। ২০১১ সাল থেকে প্রতি বছর তিনি এ খৎনার কাজ করেন। তিনি এই পর্যন্ত সর্বমোট ১৪৫০ জন বাচ্চাকে সুন্নাতে খৎনা করান এবং প্রায় দুই হাজার মানুষকে দুপুর বেলায় প্রীতিভোজ করান। বক্তারা বলেন, বিশ্বের বুকে এই সর্বপ্রথম কোন নেতা ভোটাদের এমন একটা সন্মান দেখিয়েছেন। আমরা টিটু ভাইয়ের সাথে সব সময় ছিলাম আছি এবং থাকবো। তার এমন কাজে আমাদের অনেক কিছু শিখার আছে। এসময় আলাবক্স তাহের টিটু বলেন, আমি বিগত দশ বছর যাবৎ বিনা পয়সায় বাচ্চাদের সুন্নাতে খৎনার কাজ করে আসতেছি। এই বছর এক সাথে আমার ভোটের সময়ের প্রতিশ্রতি দেওয়া ভোটারদের পা ধোয়া সেই কাজটিও করছি। এই ব্যতিক্রমি কাজ করার কারন হচ্ছে, নতুন প্রজন্মকে শিক্ষা দেওয়া এবং ভোটারের মূল্য কি সেটা বুজানো। আমরাতো শুধু মার্কার পূজা করি বা মার্কার পা ধুই, কিন্তু ভোটারদের কোন খবরও রাখি না।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *