মঠবাড়িয়ায় সড়ক দেবে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

সারাবাংলা

শাকিল আহমেদ, মঠবাড়িয়া থেকে
পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কের কালিরহাট বাজার সংলগ্ন সড়কটি দেবে গিয়ে গত তিন দিন ধরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। গত শুক্রবার হঠাৎ করে ব্যস্ততম এই সড়কটি সমতল থেকে প্রায় ১০ ফুট গভীরে দেবে যায়। এতে মঠবাড়িয়ার সঙ্গে পাশর্^বর্তী শরনখোলা ও মঠবাড়িয়ার বড়মাছুয়া ইউনিয়নের লোকজনের তিনদিন ধরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এছাড়া ঢাকা থেকে স্ট্রীমার যোগে মঠবাড়িয়ায় আসা যাত্রীরাও চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। কালিরহাট বাজার সংলগ্ন পশ্চিম দিকে দেবে যাওয়া সড়কের পাশেই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি। যেকোন সময় এটিও ধসে পড়ে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। স্থানীয়রা জানান, সড়কটি খাল সংলগ্ন হওয়ায় খালের বিপরীত পাশের্^ রাস্তা অতিক্রম করে পানি ওঠা নামা করায় প্রথমে খাদ তৈরি হয়। সড়কটি ব্যস্ততম হওয়ায় এবং ভারি যানবাহন চলাচল করায় ওই স্থানটি হঠাৎ ধসে পড়ে। সড়কটির সঙ্গে বড়মাছুয়া স্টিমারঘাট ও লঞ্চঘাট সংযুক্ত রয়েছে। বড়মাছুয়া ইউনাইটেড হাই ইনস্টিটিউশনসহ একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা এ সড়কটি দিয়ে নিয়মিত যাতায়ত করেন। বড়মাছুয়া ইউনাইটেড হাই ইনস্টিটিউশনের শিক্ষক সালাম সিকদার জানান, মঠবাড়িয়ার সঙ্গে পাশর্^বর্তী বাগেরহাট জেলার শরণখোলার সঙ্গে যোগাযোগ একমাত্র মাধ্যম মাছুয়া সড়কটি। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন দুই উপজেলার কয়েক হাজার লোক চলাচল করে। কিন্তু সড়ক দেবে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় যাত্রীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাসির হোসেন হাওলাদার জানান, সড়কটি ধসে পড়া স্থানটি দ্রুত মেরামত করা না হলে স্টিমারযোগে বড়মাছুয়া ঘাটে নামা যাত্রীরা গন্তব্যে পৌঁছতে চরম দুর্ভোগে পড়বে। তিনি দ্রুত সড়কটি সংস্কারের দাবি জানান। সড়ক ও জনপদ বিভাগ পিরোজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদ মাহমুদ সুমন জানান, সড়কটি চলাচলের উপযোগী করার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *