মন্ত্রণালয়ে খালেদার আবেদন, অনুমতি পেলেই যাবেন লন্ডন

রাজনীতি

ডেস্ক রিপোর্ট: চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার আবেদন আইন মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া হয়েছে। যাচাই-বাছাই শেষে শিগগিরই জারি হবে প্রজ্ঞাপন।

সরকারের আনুষ্ঠানিক অনুমতি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে রওনা হবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
এদিকে, মানবিক দিক বিবেচনা করে যত দ্রুত সম্ভব খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী। বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দ্রুত জানানো হবে বলেও জানান তিনি।
করোনায় আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

অনুমতি পেলে সেখান থেকে আজ যেকোনো সময় তাকে চার্টার্ড বিমানে সিঙ্গাপুর হয়ে লন্ডন নেয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দল এবং পরিবারের সদস্যরাও থাকবেন। খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে বিমানবন্দরে নেয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এখন সরকারের অনুমতির অপেক্ষায় আছে পরিবার। খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ভালো নয় বলে জানা গেছে হাসপাতাল সূত্রে।

এর আগে বুধবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসায় খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার তাকে বিদেশে নিতে সরকারের কাছে লিখিত আবেদন করেন। এর প্রতিক্রিয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের জানান, সরকার এ ব্যাপারে ইতিবাচক রয়েছে এবং বিষয়টি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

১১ এপ্রিল করোনা শনাক্তের পর বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। ১৪ দিন পরও তার করোনা নেগেটিভ না আসায় ২৭ এপ্রিল ভর্তি করা হয় এভারকেয়ার হাসপাতালে।

শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় সোমবার বিকেল থেকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে স্থানান্তর করা হয় খালেদা জিয়াকে। সেখানেই দশ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের তত্বাবধানে চিকিৎসা চলছে খালেদা জিয়ার।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *