মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চান রাসেল

সারাবাংলা

দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:
বন্ধুদের প্ররোচনায় শখের বশে মাদক গ্রহন শুরু, পরে প্রবল আসক্তি। স্ত্রী সন্তান বাবা মা কারোর খোজ নিতেন না। মাদক সেবন করে যেখানে সেখানে পড়ে থাকতেন। মাদকের টাকা সংগ্রহ করতে বিভিন্ন সামাজির অপরাধে জড়িয়ে পড়েন টগবগে যুবক রাসেল (২৫)। রাসেল দশমিনা উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের বগুড়া গ্রামের হানিফ মৃধার ছেলে।
দীর্ঘ পাচ বছরের মাদকাসক্ত জীবন ছেড়ে স্বাভাবীক জীবনে ফিরতে চান রাসেল। গতকাল মঙ্গলবার বহরমপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান,মেম্বার ও পরিবারের উপস্থিতিতে রাসেল প্রতিজ্ঞা করেন আর মাদক গ্রহন করবেন না। রাসেলের স্ত্রী ও একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। রাসেল জানান, মাদকাসক্ত জীবন খুব খারাপ আর জঘন্য। তিনি আরো বলেন, মাদকে যখন পুরোপুরি আসক্ত হয়ে পরি তখন মাদক কেনার টাকার জন্য পাগল হয়ে যেতাম, মা বাবা স্ত্রী সন্তানের প্রতি অনেক অন্যায় অবিচার করেছি আমি এখন বুঝতে পেরেছি মাদকাসক্ত জীবন কতটা ভয়াবহ। বহরমপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জলিল মল্লিক জানান, রাসেল মাদকাসক্ত হয়ে প্রতিদিন সংসারে অশান্তি করতো স্ত্রী সন্তানকে মারধর করতো সে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় পরিবারটি অশান্তি থেকে মুক্তি পেলো। বহরমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আসাদুজ্জামান সোহাগ মৃধা জানান, তিনি তার ইউনিয়নকে মাদকমুক্ত করার ঘোষনা দিয়েছেন এবং তার অংশ হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদে বসে সকলের উপস্থিতিতে রাসেল মাদকাসক্ত জীবন ছেড়ে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করায় ফুল দিয়ে তাকে স্বাভাবিক জীবনে স্বাগত জানানো হয়েছে। তিনি ঘোষনা করেন, রাসেলকে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সব ধরনের সহায়তা করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *