মানিকগঞ্জে কেমিক্যাল দিয়ে দুধ তৈরি : ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড

সারাবাংলা

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ফুকুরহাটি গ্রামে কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি করা ২৭০ কেজি নকল দুধসহ এক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল আলম গোপন সংবাদের ভিত্ত্বিতে  বুধবার ভোরে উপজেলার ফুকুরহাটি গ্রামে অভিযান চালিয়ে আব্দুর রাজ্জাক (৬০) নামে নকল দুধ ব্যবসায়ীকে আটক করে। আটককৃত আব্দুর রাজ্জাক ফুকুরহাটি গ্রামের মৃত বিষুরুদ্দিনের ছেলে।
সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল আলম জানান, আমাদের নিকট খবর আসে রাজ্জাক ধীর্ঘদিন ধরে নিজ বাড়িতে নকল দুধ তৈরি করে ঢাকায় সরবরাহ করে। পরে বুধবার ভোর ৫ টার দিকে ওই ব্যবসায়ীর বাড়িতে হাজির হই। সেখানে গিয়ে দেখি পানির সাথে এরারুড ও ইকোজেড কেমিক্যাল দিয়ে দুধ তৈরি করছেন। তখন ৯ গ্যালন নকল দুধ, ২ কেজি এরারুড পাওডারসহ তাকে আটক করি। এ ব্যাপারে নকল দুধ ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক দোষ স্বীকার করে বলেন, প্রতিদিন ঢাকার মহাজনদের চাহিদা মত ৮-৯ মন দুধ সরবরাহ করি। এক মণ পানির মধ্যে ৫ কেজি ইকোজেড ও ১০০ গ্রাম এরারুড দিলেই দুধ তৈরি হয়ে যায়। এ ব্যবসা শুধু আমি করি না, যারা দুধ ঢাকায় দেয় তারা সবাই করে। বাজার থেকে দুধ কিনতে হয় ৭০- ৮০ টাকা কেজি। আর ঢাকার মহাজনরা ৫০ টাকা করে দাম দেয়। ৮০ টাকার দুধ ৫০ টাকায় বিক্রি করতে হয়, তাই ৪০ কেজির দুধে ১৫ কেজি নকল দুধ দিয়ে ঢাকায় পাঠাই। এ ব্যাপারে সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল আলম বলেন, বুধবার সকালেই ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে নিরাপদ খাদ্য আইনের ২৫ দ্বারায় রাজ্জাককে এক বছরের কারাদন্ড ও ভেজাল দুধগুলি নষ্ট করা হয়। আমি শুনেছি উপজেলায় আরও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী রয়েছে নকল দুধ তৈরি করে বিক্রি করছেন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *