মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশ করা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ তত্ত্ববধায়কের মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাবে চিঠি

সারাবাংলা

সাইফুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ থেকে:
মানিকগঞ্জে করোনার সংক্রমণ অস্বাভাবিকভাবে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালটি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে রূপান্তরিত হওয়ায় হাসপাতালের অভ্যন্তরে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশ করা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়ে মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাবে চিঠি দিয়েছেন হাসপাতালের তত্ত্ববধায়ক। গত সোমবার বিকাল ৩টার দিকে মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক বরাবর জেলা হাসপাতালের তত্ত্ববধায়ক ডা. মো. আরশ্বাদ উল্লাহ স্বাক্ষরিত চিঠিটি দেওয়া হয়।
চিঠিতে বলা হয়েছে, মানিকগঞ্জ জেলায় অস্বাভাবিকভাবে সংক্রমন ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় করোনা প্রতিরোধ জেলা কমিটি মানিকগঞ্জ এর সিদ্ধান্ত মোতাবেক অত্র কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মানিকগঞ্জকে সম্পূর্ণরূপে কভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা কাজে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অধিক সংক্রমণ রোধকল্পে বিভিন্ন ওয়ার্ড/বিভাগ/ফ্লোরসহ হাসপাতালের অভ্যন্তরে প্রবেশ সীমিত করা হয়েছে। এমতাবস্থায় সব গণমাধ্যমকর্মীকে নিজেদের এবং হাসপাতালে ভর্তি আক্রান্ত কভিড-১৯ পজিটিভ রোগীদের সুরক্ষার স্বার্থে হাসপাতাল অভ্যন্তরে প্রবেশ করা থেকে বিরত থাকতে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। সেক্ষেত্রে তারা সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নিকট হতে সংবাদ সংগ্রহ করবেন। ইতোপূর্বে যেমন করে আমাদের সকল সেবা কার্যক্রম আপনারা সকল সময় সহযোগিতা করে আসছেন সেটি অব্যাহত রাখবেন এমনটাই প্রত্যাশা। বিষয়টি অতি জরুরি।
হাসপাতালের করোনা ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর ডা. মানবেন্দ্র সরকার মানব বলেন, গণমাধ্যমকর্মীদের হাসপাতালে প্রবেশ নিষেধ করে চিঠি ইস্যুর বিষয়টি আমার জানা নেই। বিষয়টি তত্ত্বাবধায়ক স্যার জানেন। এ ব্যাপারে জানতে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আরশ্বাদ উল্লাহর মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে মানিকগঞ্জ জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ বলেন, করোনা প্রতিরোধ কমিটির মিটিংয়ে এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। গণমাধ্যমকর্মীদের হাসপাতালে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কই ভালো বলতে পারবেন। এ বিষয়টি আমার জানা নেই।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *