মুন্সীগঞ্জে বৃদ্ধের সঙ্গে কিশোরীর বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা

সারাবাংলা

রনি শেখ, মুন্সীগঞ্জ থেকে :
মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নের পয়শাগাঁও গ্রামে এক ৫০ বছর বয়স্কের সঙ্গে ১২ বছরের নাবালিকার সরাহ কাবিনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, কামারখাড়া গ্রামের মুদি দোকানি বেশনাল গ্রামের আবদুল কাদের বেপারীর পুত্র দিদার হোসেন(৫০) প্রথম স্ত্রী রেখে ১২ বছরের এক নাবালিকা শিশুকে সরাহ কাবিন করেন।
পয়শাগাঁও গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, উপজেলার মিতারা গ্রামের ইয়াসিন হুজুর নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে গত বুধবার ৭ ই অক্টোবর সাইজউদ্দিনের মৃধা নাবালিকা কন্যা মিনি(ছদ্যনাম) সঙ্গে মুদি দোকানি দিদার হোসেনের সরাহ কাবিন করান। এই ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে জনমনে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।
অভিযুক্ত বর দিদার হোসেন জানান, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা, আমি বিশ বছর আগে বিয়ে করি। কিন্তু এখনো আমার কোন সন্তান তাই এক মাস, দুই মাস বা ছয় মাস পরে আমি আরেকটি বিয়ে করবো। আমার স্ত্রী আমার টাকা পয়সা আত্মসাৎ করার জন্য আমার বিরুদ্ধে নানাবিধ অপপ্রচার চালাচ্ছে ।
বিষয়টির ব্যাপারে কামারখাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন হালদার জানান, নাবালিকার সঙ্গে বয়স্ক ব্যক্তির বিবাহ কথাটি যখন আমি জানতে পারি সঙ্গে সঙ্গে ইউএনও স্যার কে জানাই। এ বিষয়ে টঙ্গীবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছাম্মৎ হাসিনা আক্তার জানান, বিষয়টি শোনার পর অভিযুক্ত দিদার হোসেন কে ধরতে পুলিশ পাঠাই।
এদিকে টঙ্গীবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হারুর অর রশিদ জানান, বিষয়টি ইউএনও স্যারের মাধ্যমে জানতে পেরে অভিযুক্ত দিদার হোসেন কে ধরার জন্য পুলিশ পাঠাই। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দিদার হোসেন পালিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *